টাইমলাইনভারত

নদীতে ফেলা হল করোনার ওষুধ, মৃত্যু অগুনতি মাছের; গোটা ঘটনায় চাঞ্চল্য এলাকাজুড়ে

আমরা সকলেই জানি নদীর জলে রাসায়নিকের মাত্রা বেড়ে গেলে মাছের মৃত্যু নিশ্চিত। এই রাসায়নিকগুলির মধ্যে রয়েছে মেডিকেল বর্জ্যও।নদীতে এবার ফেলে দেওয়া ওষুধের কারনে জম্মু ও কাশ্মীরের নীরু নদীতে অগুনতি মাছের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। যার ফলে সেই এলাকায় পানীয় জল থেকে শুরু করে অর্থনীতিও সংকটে পড়েছে

এই নদীর মাছের ওপরই নির্ভরশীল এই এলাকার অসংখ্য মানুষের। এই মৃত্যুর ফলে তাদের প্রচুর আর্থিক ক্ষতি হয়েছে। ডোডা জেলার ভাদেরওয়াহ এলাকার নীরু নদীতে মরা মাছ ভাসতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তারা জানিয়েছেন, গুপ্ত গঙ্গা মন্দির, পার্নালা ও অটল-গড় এলাকার কাছে কয়েকশো মাছ মারা যাওয়ার পরে নদীর তীরে ভেসে ওঠে। অভিযোগ করোনা রোগীদের ওষুধ ফেলে দেওয়া হয়েছিল এই নদীতে।

পিটি আইকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ভাদরওয়াহ এর অতিরিক্ত জেলা শাসক রকেশ কুমার বলেন, আমরা এর বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করেছি এবং ঘটনার তদন্তের জন্য একটি ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং দল গঠন করা হয়েছে এবং যারা দোষী বলে প্রমাণিত হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে যে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ কোথাও ফেলে দেওয়া হয় না তবে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে প্রতি মাসে সঠিকভাবে নষ্ট করা হয়। তবে স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি বিভিন্ন ওষুধের কয়েকশ স্ট্রিপ বিভিন্ন স্থানে ভাসতে দেখাছেন তারা। তাদের দাবি hydroxychloroquine, azithromycin, betamethasone, paracetamol এর মতো ওষুধ যা করোনা রোগীর চিকিৎসাতে ব্যাবহার হয় তা নদীর জলে ভেসে থাকতে দেখা গেছে।

 

 

 

Back to top button