‘কলকাতা হাই কোর্ট ‘ডাম্পিং গ্রাউন্ড’ হয়ে গিয়েছে! দায়ী…’, বোমা ফাটালেন প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ কলকাতা হাই কোর্টের (Calcutta High Court) কয়েকজন বিচারপতির রায় এবং পর্যবেক্ষণ নিয়ে গত কয়েক বছরে বহুল চর্চা হয়েছে। কিছু কিছু বিচারপতির যোগ্যতা নিয়েও উঠেছে প্রশ্ন। এবার দেশের প্রথম হাই কোর্ট নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন মেঘালয় এবং মাদ্রাজ হাই কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় (Sanjib Banerjee)।

সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে কলকাতা হাই কোর্ট নিয়ে প্রশ্ন করা হয় সঞ্জীববাবুকে। জবাবে তিনি বলেন, দেশের এই ঐতিহ্যশালী, প্রাচীন আদালত বর্তমানে বাতিল লোকেদের ‘ডাম্পিং গ্রাউন্ডে’ পরিণত হয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই অবসরপ্রাপ্ত এই প্রাক্তন বিচারপতির মন্তব্য নিয়ে শুরু হয়েছে চর্চা।

সঞ্জীববাবু বলেন, ‘বাতিল লোকেদের ‘ডাম্পিং গ্রাউন্ড’ হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে কলকাতা হাই কোর্টকে। অথচ কলকাতাতেই দেশের প্রথম হাই কোর্ট। কত ঐতিহ্য। এখানকার যে সকল বিচারপতি উত্তর-পূর্বের ছোট ছোট হাই কোর্টে পাঠানো উচিত, সেটা পাঠানো যাচ্ছে না। কলকাতা হাই কোর্টে তাঁদের পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে’।

আরও পড়ুনঃ ‘ভাল অফিসার, সৎভাবে দায়িত্ব পালন করুন’, আদালতে হাজিরা দিতেই পুলিশ কমিশনারকে যা বললেন বিচারপতি…

কলকাতা হাই কোর্টের পাশাপাশি প্রাক্তন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের (Abhijit Ganguly) রাজনীতিতে যোগদান প্রসঙ্গেও কথা বলেন সঞ্জীববাবু। অবসরপ্রাপ্ত এই বিচারপতি বলেন, অভিজিৎবাবুর রাজনীতিতে যোগ দেওয়া উচিত হয়নি।

মেঘালয় এবং মাদ্রাজ হাই কোর্টের প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি জানান, অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের নিষ্ঠা এবং সততা নিয়ে তাঁর মনে কোনও প্রশ্ন নেই। তবে বিচারপতির পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে তিনি যেভাবে একটি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন তা উচিত হয়নি বলে মনে করেন সঞ্জীববাবু।

high court

প্রসঙ্গত, চব্বিশের লোকসভা ভোটের প্রাক্কালে বিচারপতি পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে বিজেপিতে যোগদান করেন কলকাতা হাই কোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। শোনা যাচ্ছে, আসন্ন ভোটে তাঁকে ‘অধিকারী গড়’ তমলুক থেকে দাঁড় করাতে পারে পদ্ম-শিবির। যদি সত্যি এমনটা হয় তাহলে তমলুকে তৃণমূলের তরুণ নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে অভিজিৎবাবুকে।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর