মাত্র ৩ বছরে আয় ১,২৩০ কোটি! ক্যান্সেলড টিকিটেই মালামাল হল রেল, RTI-তে উঠে এল বড় তথ্য

বাংলা হান্ট ডেস্ক: এবার একটি অত্যন্ত অবাক করা তথ্য সামনে এসেছে। মূলত, ক্যান্সেল করা টিকিটের মাধ্যমে ভারতীয় রেলের (Indian Railways) বিপুল আয়ের প্রসঙ্গ সোশ্যাল মিডিয়ায় (Social Media) ঘুরপাক খাচ্ছিল। তবে, এবার সেই বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জানা গিয়েছে। রেলের তরফে একটি RTI-এর উত্তরের মাধ্যমে ওয়েটিং লিস্টের ক্যান্সেলড টিকিট থেকে আয়ের তথ্য প্রকাশে আনা হয়েছে। RTI থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুসারে, ভারতীয় রেল ২০২১, ২০২২ এবং ২০২৩ সালের ওয়েটিং লিস্টের ক্যান্সেলড টিকিট থেকে প্রায় ১,৩০০ কোটি (১,২২৯.৮৫ কোটি টাকা) টাকা আয় করেছে। এছাড়াও, শুধুমাত্র চলতি বছরের জানুয়ারি মাসেই, রেল মোট ৪৫.৮৬ লক্ষ ক্যান্সেলড টিকিট থেকে ৪৩ কোটি টাকা আয় করেছে।

   

দ্য হিন্দুর এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, মধ্যপ্রদেশের RTI অ্যাক্টিভিস্ট ডক্টর বিবেক পান্ডে এই RTI দায়ের করেন। এদিকে, এই RTI-এর জবাবে আরও অনেক বিষয় সামনে এসেছে। এই পরিসংখ্যানগুলি থেকে জানা গেছে, ভারতীয় রেল বছরের পর বছর ক্যান্সেলড টিকিট টিকিট থেকে কত আয় করেছে।

From cancelled tickets Railways earned 1,230 crores in just 3 years.

ক্রমশ বেড়ে আয়: জানা গিয়েছে যে, ২০২১ সালে, ওয়েটিং লিস্টের মোট ২.৫৩ কোটি টিকিট ক্যান্সেল হয়। এর মাধ্যমে রেল মোট ২৪২.৬৮ কোটি টাকা আয় করে। এদিকে, ২০২২ এবং ২০২৩ সালে যথাক্রমে ৪.৬ কোটি এবং ৫.২৬ কোটি টিকিট বাতিল করা হয়েছিল। যার ওপর ভর করে রেল এই দুই বছরে যথাক্রমে ৪৩৯.১৬ কোটি এবং ৫০৫ কোটি টাকা আয় করেছে।

আরও পড়ুন: IPL শুরুর আগেই চমক, CSK-র অধিনায়কত্ব ছাড়লেন ধোনি! নতুন ক্যাপ্টেন রুতুরাজ

দীপাবলিতেও হয়েছে বাম্পার আয়: RTI থেকে আরও জানা গিয়েছে যে, ২০২৩ সালে দীপাবলির সময়ে ৫ নভেম্বর থেকে ১৩ নভেম্বরের মধ্যে, ৯৬.১৮ লক্ষ রেলের টিকিট ক্যান্সেল করা হয়। এর মধ্যে কনফার্মড রিজার্ভেশন অ্যাগেইনস্ট ক্যান্সেলেশন (RAC) টিকিটও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে এবং শুধুমাত্র দীপাবলির সপ্তাহেই, রেল ক্যান্সেলড টিকিট থেকে মোট ১০.৩৭ কোটি টাকা আয় করে।

আরও পড়ুন: শুধু ভারতই নয়, গোটা বিশ্বেই কমছে জনসংখ্যা! ঘনিয়ে আসছে বিপদ, ঘুম ওড়াল নয়া রিসার্চ

টিকিট ক্যান্সেল: ভারতীয় রেলে দু’টি উপায়ে রিজার্ভেশন টিকিট পাওয়া যায়। একটি রেল কাউন্টার টিকিট এবং অন্যটি হল অনলাইন ই-টিকিট। IRCTC-র মতে, RAC বা ওয়েটিং লিস্টের টিকিট বাতিল হলে, রিফান্ড থেকে ৬০ টাকা কেটে নেওয়া হয়। যেখানে কনফার্ম ই-টিকিট ট্রেন ছাড়ার নির্ধারিত সময়ের ৪৮ ঘণ্টা আগে ক্যান্সেল করা হলে, এসি ফার্স্ট ক্লাসে ২৪০ টাকা, এসি-২ টায়ারে ২০০ টাকা, এসি-৩ টায়ারে ১৮০ টাকা, স্লিপারে ১২০ টাকা এবং সেকেন্ড ক্লাসে ৬০ টাকা কেটে নেওয়া হয়। এদিকে, যদি কনফার্ম টিকিট ট্রেনের সময়সূচীর ৪৮ থেকে ১২ ঘন্টার মধ্যে বাতিল করা হয়, সেক্ষেত্রে মোট ভাড়ার ২৫ শতাংশ কেটে নেওয়া হয় এবং বাকিটা ফেরত দেওয়া হয়।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর