টাইমলাইনভারতখেলাআন্তর্জাতিকক্রিকেট

‘নিজের ছেলে, মেয়েকে বর্ডারে পাঠিয়ে জঙ্গি দেশের প্রধানকে বড় ভাই বলুন” সিধুকে তুলোধোনা গম্ভীরের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ এর আগেও আলটপকা বেশ কিছু মন্তব্য করে বিতর্কে জড়িয়ে ছিলেন প্রাক্তন ক্রিকেটার তথা পাঞ্জাবের কংগ্রেস সভাপতি নভজ্যোত সিং সিধু। পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান প্রসঙ্গে করা তার মন্তব্য এবং গতবারও সিধু যখন পাকিস্তান গিয়েছিলেন, তখন করতারপুর করিডোর খোলার ইস্যু নিয়ে পাকিস্তানি সেনা প্রধান জেনারেল বাজওয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ নিয়ে তৈরি হয়েছিল তীব্র বিতর্ক। এমনকি তার বিরুদ্ধে বারবার এই ইস্যু উত্থাপন করেছেন পাঞ্জাবের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিংও। পাকিস্তানের প্রতি তার এই ধরনের আচরণের কারণেই সিধু মুখ্যমন্ত্রী হলে তিনি তার তীব্র বিরোধিতা করবেন বলেও জানিয়ে দিয়েছিলেন অমরিন্দর।

এবার ফের একবার বিতর্কে জড়ালেন এই পূর্ব ক্রিকেটার। কাতারপুর করিডোর থেকে গুরুদ্বার শ্রী করতারপুর সাহিব দর্শন করতে গিয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে নিজের বড় ভাই বলে সম্বোধন করে বসলেন তিনি। যার জেরে ফের একবার সমালোচনার ঝড় বয়ে যাচ্ছে গোটা দেশজুড়ে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সিধুর সঙ্গে এই সফরে পাঞ্জাব কংগ্রেসের পর্যবেক্ষক হরিশ চৌধুরী, মন্ত্রী পরগট সিং ছাড়া আরও বেশ কয়েকজন কংগ্রেস নেতাও উপস্থিত ছিলেন।

এই বিতর্ক নিয়ে ইতিমধ্যেই মুখ খুলেছেন ভারতের আরেক প্রাক্তন ওপেনার তথা বিজেপি সাংসদ গৌতম গম্ভীরও। পাকিস্তান প্রসঙ্গে বরাবরই সোজাসাপ্টা বয়ান দিতে দেখা গিয়েছে গৌতমকে। এবারও সিধুর বয়ান সম্পর্কে নিজের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে আক্রমণ শানিয়েছেন তিনি। তিনি লেখেন, “আগে আপনার ছেলে বা মেয়েকে সীমান্তে পাঠিয়ে তারপর সন্ত্রাসী রাষ্ট্রের প্রধানকে বড় ভাই বলুন!”

একইসঙ্গে সিধুর এই আচরণকে জঘন্য এবং মেরুদন্ডহীন বলেও উল্লেখ করেন তিনি। জানিয়ে রাখি, এর আগে পুলওয়ামা হামলার আগে পরেও পাকিস্তানকে দরাজ হাতে সার্টিফিকেট দিয়েছিলেন সিধু৷ তখনও কটাক্ষের মুখে পড়তে হয়েছিল তাকে।

Related Articles

Back to top button