ভারত চাল পাঠানো বন্ধ করলে না খেয়ে মরবে একাধিক দেশ! দিল্লির কাছে নিষেধাজ্ঞা তোলার অনুরোধ IMF-র

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক : ফের ভারতীয় দাপট দেখল গোটা বিশ্ব। এবার নন বাসমতি চালের রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের জন্য ভারতকে অনুরোধ করল ইন্টারন্যাশানাল মনিটারি ফান্ড(IMF)। কারণ আইএমএফ জানিয়েছে, এভাবে রফতানি বন্ধ করে দিলে বাসমতি চালের (Basmati Rice) সংকট দেখা দেবে। তার জেরে দামও বাড়বে হুহু করে।

সূত্রের খবর, ভারত সরকার গত ২০ জুলাই বাসমতি নয় এমন সাদা চালের রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল। কারণ দেশে যাতে চালের সংকটের জেরে দাম না বেড়ে যায় সেকারণে এই পদক্ষেপ নিয়েছিল ভারত। আর তার জেরে সমস্যায় পড়ে যায় একাধিক দেশ। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ভারত থেকে চাল রফতানি করা হয়।

কিন্তু ভারত এতে লাগাম টেনে ধরায় সমস্যার মুখে পড়ে যায় একাধিক রাষ্ট্র। এদিকে আইএমএফের মুখ্য অর্থনীতিবিদ পিয়ারে অলিভার গৌরিনচাস জানান দেন এভাবে যদি ভারত পদক্ষেপ নেয় তবে বিশ্বের অন্যান্য দেশও পালটা পদক্ষেপ নিতে পারে।

rice

সেকারণেই আমরা অনুরোধ করছি এই রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিক ভারত। কারণ এতে গোটা বিশ্ব ক্ষতির মুখে পড়ছে। ইন্টারন্যাশানাল মনিটারি ফান্ড-এর মুখ্য অর্থনীতিবিদ পিয়ারে অলিভার গৌরিনচাস একথা জানিয়েছিলেন।

ভারত কত চাল বিদেশে রফতানি করে? সূত্রের খবর, সব মিলিয়ে ২০২২-২৩ আর্থিক বছরে ভারত ৪.২ লক্ষ কোটি চাল রফতানি করেছিল বিদেশে। তবে এবছর সেটা কমে দাঁড়িয়েছে ২.৬২ লক্ষ কোটি ডলারে। মোটামুটিভাবে আমেরিকা, থাইল্যান্ড, ইতালি, স্পেন, শ্রীলঙ্কায় ভারত চাল রফতানি করে।

তবে আইএমফের মুখ্য অর্থনীতিবিদ পিয়ারে অলিভার গৌরিনচাস জানান, ভারতের অর্থনীতিতে জোরদার ভাবে বাড়ছে। আইএমএফের এক আধিকারিকের দাবি, ‘আমরা ভারতের ব্যাপারটা বুঝেছি। কিন্তু যদি বিশ্বের ব্যাপারটা দেখেন সেটা কিন্তু অন্য দিকে যাচ্ছে। সেক্ষেত্রে আমরা বলছি এই নিষেধাজ্ঞা শিথিল করা দরকার। সেই সঙ্গেই বলা হচ্ছে ভারতের ডিজিটাল পরিকাঠামো নিঃসন্দেহে অত্যন্ত ভালো। এনিয়ে প্রশংসাও করছে আইএমএফ।

Avatar
Sudipto

সম্পর্কিত খবর