ক্রমেই কমে চলেছে বাংলাদেশের হিন্দু জনসংখ্যা! কারণ কী? সামনে এল ভয়ঙ্কর রিপোর্ট

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক: সম্প্রতি ভারতের (India) জনসংখ্যা নিয়ে একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক উপদেষ্টা পরিষদ। রিপোর্ট বলছে হিন্দু প্রধান ভারতে দিনদিন কমেছে হিন্দু সংখ্যা। অন্যদিকে ক্রমশ বাড়ছে সংখ্যালঘু সংখ্যা। কিন্তু বাংলাদেশে (Bangladesh) সংখ্যালঘুদের হাল হকিকত কীরকম? সেখানেও কি বেড়েছে সংখ্যালঘু সংখ্যা? কী বলছে আমাদের পড়শিদেশটির আদমশুমারি রিপোর্ট?

রিপোর্ট বলছে, বাংলাদেশের অবস্থা ভারতের মত নয়। স্বাধীনতার পর পড়শিদেশে যতজন হিন্দু ছিল এখন সেই সংখ্যা নাকি অনেকটাই কমে এসেছে। সেই সাথে কমেছে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষজনও। উল্টে দিন দিন বেড়েই চলেছে মুসলিম সম্প্রদায়ের সংখ্যা। জানেন এখন বাংলাদেশে হিন্দু জনসংখ্যা কত?

বাংলাদেশ বিউরো বলছে, দেশ যখন স্বাধীন হয় তখন বাংলাদেশে হিন্দু জনসংখ্যা ছিল প্রায় ১৩.৫০ শতাংশ। তবে তা ক্রমশ কমতে কমতে এখন ঠেকেছে ৭.৯৫ শতাংশে। একই সাথে কমেছে খ্রিষ্টান, বৌদ্ধ ইত্যাদির সংখ্যাও। এমনকি গতবছরের তুলনায় এবছরও হিন্দুদের সংখ্যা কমেছে আরও প্রায় ১ শতাংশ। তবে দেশটির সংখ্যাগুরু জনসংখ্যায় কিন্তু কোনও কমতি দেখা যায়নি। উল্টে তা ক্রমেই বেড়ে গেছে।

আরও পড়ুন:প্লে অফের টিকিট পাকা হতেই দলে বদল? গুজরাতের বিরুদ্ধে প্রথম একাদশে বড় চমক কলকাতার

ইতিহাস ঘাঁটলে দেখা যায়, ১৯০১ সালে এই অঞ্চলে হিন্দু জনগোষ্ঠীর সংখ্যা ছিল ৩৩ শতাংশ। যদিও তখনও দেশ স্বাধীন হয়নি। তবে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে ক্রমেই কমে এসেছে বাংলাদেশের সংখ্যালঘু সংখ্যা। ২০১১ সালের রিপোর্ট বলছে, সেই সময়ও বাংলাদেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষদের সংখ্যা ছিল ১.১৮ কোটি। শতাংশের হিসাব করলে তা ছিল ৮.৫৪ শতাংশ। আর দিন দিন সেটাই কমে দাঁড়িয়েছে ৭.৯৫ শতাংশ।

আরও পড়ুন:পাকিস্তানে ধুন্ধুমার! সরকারের বিরুদ্ধে রাস্তায় হাজার হাজার কৃষক, চিন্তায় শেহবাজ

Hindus in Bangladesh 1

যেখানে মুসলিম জনসংখ্যার কথা বললে ২০১১ সালের জনশুমারি অনুযায়ী তা ছিল ৯০ শতাংশ। যা এবছর বেড়ে হয়েছে ৯১.০৪ শতাংশ। এখন প্রশ্ন আসবে দিন দিন কেন কমছে বাংলাদেশের হিন্দু জনগোষ্ঠীর সংখ্যা? জবাবে যা উঠে আসছে তা মোটেও সন্তোষজনক নয়। খবর বলছে, বিগত কয়েক দশকে দেশটিতে ধর্মান্তরকরণের সংখ্যা ক্রমাগত বেড়েই চলেছে। সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে এমন একাধিক ঘটনা সামনে এসেছে যা থেকে এটাই প্রমাণ হয় যে, পড়শিদেশে সংখ্যালঘুরা খুব একটা সুখকর পরিস্থিতিতে নেই। মন্দির ভাঙচুর থেকে নির্যাতন এমন অনেক ঘটনাই ঘটে সেখানে। এইসব কারণে বহু মানুষ তো ভারতেও চলে এসেছেন।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর