‘জ্যোতিপ্ৰিয় কেমন আছেন?’, প্রশ্ন শুনেই হাসি শুরু চিকিৎসকদের, শুধুই বললেন, ‘কিছু বলার নেই’

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ অসুস্থ জ্যোতিপ্ৰিয় মল্লিক। বর্তমানে এসএসকেএম হাসপাতালের কার্ডিওলজি বিভাগে চিকিৎসাধীন রেশন দুর্নীতিতে (Ration Scam) ধৃত রাজ্যের প্রাক্তন খাদ্যমন্ত্রী তথা বর্তমান বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক।শারীরিক অবস্থার কী আরও অবনতি হচ্ছে? হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছিল, শরীরের বাঁ দিকে ফের অসাড়তা অনুভব করছেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। তার চিকিৎসায় তৈরী হয়েছে মেডিক্যাল বোর্ড।

   

balu

হেসে লুটোপুটি মেডিক্যাল বোর্ডের সদস্যরা

বৃহস্পতিবার সকালে মেডিক্যাল বোর্ডের সদস্যরা জ্যোতিপ্ৰিয়কে দেখে বের হন। সেই সময় সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিরা তাদের মন্ত্রীর স্বাস্থ্যের বিষয়ে প্রশ্ন করেন। তবে সেই প্রশ্নে নিশ্চুপ তিন চিকিৎসকই। মুখে শুধু হাসি। ফের প্রশ্ন করা হয়, ‘জ্যোতিপ্ৰিয় মল্লিক কেমন আছেন? ‘ প্রশ্ন শুনে ফের হাসছিলেন চিকিৎসকরা। কেবলই হাসি আর হাসি।

সংবাদমাধ্যমের বারংবার প্রশ্নে এক চিকিৎসক হাসতে হাসতে বলেন, “আমরা কিছু বলব না।” “কতদিন হাসপাতালে থাকতে হবে জ্যোতিপ্রিয়কে?’ হালকা হাসি নিয়ে চিকিৎসক বললেন, ‘আমাদের কিছু বলার নেই।’ এরপরই মেডিক্যাল বোর্ডের সদস্যরা গাড়িতে উঠে চলে যান।

বেজায় অসুস্থ জ্যোতিপ্ৰিয়

প্রসঙ্গত, রক্তে বেড়েছে শর্করার পরিমাণ। এছাড়াও শরীরে আরও একাধিক সমস্যা রয়েছে। তাই জেলযাত্রার ৯ দিনের মাথায় গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তাকে SSKM হাসপাতালে ভর্তি করানো হয় জ্যোতিপ্ৰিয়কে। গ্রেফতারির পর থেকেই নিজের অসুস্থতার কথা জানিয়ে আসছেন জ্যোতিপ্ৰিয়। কখনও মিডিয়ার সামনে কখনও আদালতে নিজের শারীরিক অবস্থা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন জ্যোতিপ্ৰিয়।

গত ২৭ অক্টোবর গ্রেফতারির পরদিন তাকে নিম্ন আদালতে পেশ করতেই তিনি অসুস্থ হয়ে যান। পরে যদিও টানা চিকিৎসায় সুস্থ হয়ে ওঠেন। গত সপ্তাহে সিজিও থেকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে তার বাম হাত ও পা পক্ষাঘাতগ্রস্ত হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করেছিলেন জ্যোতিপ্রিয়। মৃত্যুর কথাও উঠে এসেছিল বনমন্ত্রীর মুখে।

আরও পড়ুন: আমূল বদলে যাবে আবহাওয়া! ফের কামড় বসাবে ঝড়-বৃষ্টি? দক্ষিণবঙ্গ নিয়ে বিরাট আপডেট দিল IMD

জ্যোতিপ্ৰিয়র চিকিৎসায় মেডিক্যাল বোর্ড

কিন্তু কেন বারবার শরীরের বাঁ দিকে সমস্যা হচ্ছে মন্ত্রীর? সেই কারণ খুঁজতেই বুধবার স্নায়ু রোগ, এন্ডোক্রিনোলজি, মেডিসিন, নেফ্রোলজি, ইউরোলজি, কার্ডিওলজি বিভাগের চিকিৎসকদের নিয়ে মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয় জ্যোতিপ্ৰিয়র চিকিৎসার জন্য। তবে বালুর চিকিৎসায় প্রথমে যে মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়, তাতে কার্ডিওলজির কোনও চিকিৎসকই ছিলেন না। এরপর বুধবারই ১১ সদস্যের আরও একটি মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়। সেখানে রয়েছেন কার্ডিওলজিস্টও।

balu 7

SSKM-এ জ্যোতিপ্ৰিয়

প্রথমে SSKM হাসপাতালের হৃদরোগ বিভাগের এমারজেন্সিতে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে। কার্ডিওলজি বিল্ডিংয়ের ৫ নম্বর কেবিনে মন্ত্রীকে ভর্তি করা হয়। সেদিনই বিকেল সাড়ে পাঁচটা থেকে আড়াই ঘণ্টা চিকিৎসকের পর্যবেক্ষণে থাকার পর রাত আটটা নাগাদ কার্ডিওলজি ব্লকের পাঁচ নম্বর কেবিনে ভর্তি করা হয় তাকে। যদিও কার্ডিওলজি ব্লকে ভর্তি হয়েও কার্ডিওলজির চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে নেই তিনি। নিউরো মেডিসিন এবং মেডিসিন বিভাগের তত্ত্বাবধানে রয়েছেন রেশন দুর্নীতিতে ধৃত জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। বুধবার বিকেলে তার মস্তিষ্ক ও শিরদাঁড়ার এমআরআই করা হয়েছে। তারপর থেকে মন্ত্রী কেমন আছেন সেই বিষয়ে কোনও আপডেট হাতে আসেনি।