মানুষ নয় মুরগি প্রাণ কাড়লো ৩ যুবকের! মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় ঘুম উড়লো গ্রামবাসীর

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক: সম্প্রতি আসামে (Assam) এক মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় (Tragic Accident) প্রাণ হারিয়েছেন তরতাজা তিন যুবক। আসামের কাছাড় জেলার লক্ষ্মীপুরে রবিবার একটি মুরগিকে (Hen) উদ্ধার করতে গিয়েই প্রাণ হারিয়েছেন তিন যুবক।  এদের তিন জনের মধ্যে রয়েছে একই পরিবারের দুই ভাই প্রসেনজিৎ দেব এবং মনজিৎ দেব। আর একজন রয়েছেন তাদেরই প্রতিবেশী অমিত সেন।

এদিন এই লাখিমপুর এলাকার একটি বাড়ির কুয়োতে আচমকাই একটি মুরগি ঝাঁপ দিয়ে দেয়। আর এদিন মুরগিকে কুয়োর মধ্যে পড়ে যেতে দেখে তাকে বাঁচানোর জন্য নিমেষের মধ্যেই কুয়োয় ঝাঁপ দিয়ে দেয় বাড়ির ছোট ছেলে।  আর ভাইকে কুয়োয় পড়ে যেতে দেখে তাকে বাঁচাতে কুয়োর মধ্যে ঝাঁপ দেয় বাড়ির বড় ছেলে।

কিন্তু তাদের দুজনের কেউই আর সেই কুয়া থেকে বাইরে বেরিয়ে আসতে পারেনি। এরপর স্থানীয় এক যুবক এই দুই ভাইকে বাঁচাতে অত্যন্ত সাহসের সাথে নিজেও ঝাঁপ দিয়ে দেয় কুয়োর মধ্যে। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক ভাবে ঘন্টার পর ঘন্টা কেটে গেলেও সে-ও আর বেরোতে পারেনি ওই কুয়ো থেকে।

এরপর স্থানীয় বাসিন্দারা তড়িঘড়ি খবর দেয় পুলিশে।সন্তানহারা ওই পরিবারের তরফে এদিন জানানো হয় প্রথমে আচমকাই একটি মুরগি গিয়ে কুয়োয় ঝাঁপ দেয়। যা দেখতে পেয়ে বাড়ির ছোট ছেলে প্রসেনজিৎ দেব প্রথমে ঝাঁপ দিয়েছিল কুয়োয়।

আরও পড়ুন: ভারত থেকে ১২শ কোটি টাকার ব্রডগেজ রেলকোচ কিনছে বাংলাদেশ, স্বাক্ষরিত হল বিরাট চুক্তি

তখন ভাইকে বাঁচানোর জন্য একইভাবে কুয়োর মধ্যে ঝাঁপিয়ে পড়েন বড় ছেলে মনজিৎ। কিন্তু তাদের দুজনকে বাঁচাতে প্রতিবেশী যুবক আমিত সেন-ও ঝাঁপ দিয়ে দেয় কুয়োয়। কিন্তু যথারীতি সেও আর বেরোতে না পারায় ঘটে যায় চরম সর্বনাশ।

3 Men died

 

এরপর ঘটনাস্থলে পুলিশ আসার পর খবর দেওয়া হয় এসডিআরএফকে। এরপর প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের যৌথ উদ্যোগে উদ্ধার কার্য চালিয়ে রবিবার রাতেই ওই কুয়ো থেকে তিন যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

Anita Dutta
Anita Dutta

অনিতা দত্ত, বাংলা হান্টের কনটেন্ট রাইটার। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৪ বছরের বেশি সময় ধরে সাংবাদিকতা পেশার সাথে যুক্ত।

সম্পর্কিত খবর