ফের চমক, এবার বিরাট ঘোষণা টাটার! শুনেই থরথর করে কাঁপছে বিদেশি কোম্পানিগুলো

   

বাংলাহান্ট ডেস্ক : Tata Punch CNG সম্প্রতি লঞ্চ করেছে টাটা মোটরস। টাটা গোষ্ঠী এই মডেলটির পেট্রল ও কম্প্রেসড ন্যাচারাল গ্যাস চালিত, দুটি ভার্সন লঞ্চ করেছে। জানা যাচ্ছে টাটা গোষ্ঠী শীঘ্রই এই চার চাকার বৈদ্যুতিক ভার্সন নিয়ে আসতে চলেছে বাজারে। বৈদ্যুতিক ফেসলিফ্ট সহ নেক্সন-এর চারটি গাড়ি আগামী কয়েক মাসের মধ্যে লঞ্চ হবে।

এই গাড়িগুলি হতে চলেছে বৈদ্যুতিক এবং SUV (Sport Utility Vehicle)। নেক্সন, টিয়াগো এবং টাইগর-এর বৈদ্যুতিক ভার্সন এই মুহূর্তে বিক্রি করে টাটা গোষ্ঠী। সংস্থা এক্সপ্রেস টি নামক বৈদ্যুতিক গাড়ি বিক্রি করে বাজারে। সে ক্ষেত্রে টাটা গোষ্ঠী চাইছে আরো একধাপ এগিয়ে যেতে। সম্প্রতি ভারতে অনুষ্ঠিত একটি অটো এক্সপোতে Curvv EV নামের একটি নতুন কনসেপ্ট সামনে আনে টাটা গোষ্ঠী।

জানা গেছে ভারতে সেই গাড়ি লঞ্চ করা হবে। পাশাপাশি শক্তিশালী SUV হ্যারিয়ার গাড়ির বৈদ্যুতিক ভার্সনও বাজারে আনতে চলেছে টাটা।এছাড়াও টাটা মোটরস নিয়ে আসতে চলেছে টাটা নেক্সন বৈদ্যুতিক গাড়ির ফেসলিফ্ট ভার্সন। এটি আগামী সেপ্টেম্বর মাসে লঞ্চ হতে পারে ভারতের বাজারে। আগামী বছরের শুরুর দিকে বাজারে লঞ্চ হতে পারে Curvv EV।

নেক্সন এর পর বাজার কাঁপাতে আসছে হ্যারিয়ার।টাটা সনস-এর চেয়ারম্যান এন চন্দ্রশেখরন এই প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, “আমরা বড় পরিকল্পনা করছি টাটা মোটরস ইন্ডিয়া এবং JLR (জাগুয়ার ল্যান্ড রোভার) এর ইলেকট্রিক গাড়ি নিয়ে। ইতিমধ্যেই আমরা বাজারে বেশ কয়েকটি গাড়ি নিয়ে এসেছি। এই বছরের মধ্যে আমরা আনতে চলেছি নেক্সন-এর আপগ্রেড ভার্সন।”

tata motors 1 768x402.jpg

এছাড়াও আগামী বছরের প্রথম ত্রৈমাসিকের মধ্যে বাজারে আসবে হ্যারিয়ার, পাঞ্চ এবং শেষ কার্ভ ইভি। চন্দ্রশেখরনের আরো বক্তব্য, আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে টাটা মোটরস লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে যাত্রীবাহী গাড়ির ৫০% বৈদ্যুতিকরণ করার। JLR এর ক্ষেত্রে ৬৫ শতাংশে রাখা হয়েছে এই লক্ষ্যমাত্রা। তবে, টাটার এই ঘোষণায় রীতিমতো উচ্ছ্বসিত হয়ে পড়েছে আমজনতা।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর