এগুলো কী! নদিয়ায় পুরনো বাড়ির মাটি খুঁড়তেই মিলল বহুমূল্য তিনটি বিষ্ণু মূর্তি, তারপর….

   

বাংলাহান্ট ডেস্ক : ফের একবার মাটি খুঁড়ে পাওয়া গেল দুষ্প্রাপ্য ঐতিহাসিক সামগ্রী। এবার ঘটনাস্থল নদীয়ার (Nadia) নাকাশিপাড়ার বেজ বাজার এলাকার বাসিন্দা পুসি সর্দারের বাড়ি। তার বাড়িতে খনন কার্য চলার সময় উদ্ধার হয় দুষ্প্রাপ্য তিনটি বিষ্ণু মূর্তি। নাকাশিপাড়া থানা এলাকার বেজ বাজারের বাসিন্দা পুসি সর্দারের বাড়ির খননকার্য চলার সময় গত ১৪ই মার্চ উদ্ধার হয় এই মূর্তিগুলি।

মূর্তি উদ্ধারের কথা শুনে জনৈক পুসি সর্দারের বাড়িতে ভিড় জমান স্থানীয়রা। এরপর স্থানীয়দের পরামর্শে ওই মূর্তিগুলিকে সরদার বাড়িতে প্রতিষ্ঠা করে পুজো করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এরপর মূর্তি উদ্ধারের খবর যায় নাকাশিপাড়া থানার কাছে। সর্দার বাড়িতে হানা দিয়ে মূর্তিগুলি উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর পুলিশের উদ্যোগে এই মূর্তিগুলি তুলে দেওয়া হয় ট্রাস্ট অব ওয়েস্ট বেঙ্গলের অ্যাডমিনিস্ট্রেটর জেনারেল অফিসিয়াল বিপ্লব রায়ের হাতে।

আরোও পড়ুন : কলম্বো-তে আজও বৃষ্টির ভ্রুকুটি! রিজার্ভ ডে-এর স্মৃতি মনে করে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে আতঙ্কে ভারত

নাকাশিপাড়া পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিপ্লব রায়ের হাতে এই মূর্তিগুলি তুলে দেওয়া হয় নাকাশিপাড়া থানা প্রাঙ্গণে। বিপ্লব রায়ের হাতে মূর্তিগুলো তুলে দেওয়ার সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন মুর্শিদাবাদ জেলা পুলিশের ডিএসপি এম রহমান, নাকাশিপাড়া থানার এসপি সহ অন্যান্যরা। বিশেষজ্ঞদের মত এই মূর্তিগুলি আনুমানিক হাজার বছরের পুরনো। 

আরোও পড়ুন : ‘ভিলেন হব ভেবেছিলাম, মৃণালদা বললেন…’, স্কটিশে পা দিয়েই আবেগপ্রবণ মিঠুন

ঐতিহাসিকরা বলছেন এই মূর্তিগুলি পাল যুগের শেষ সময়কালের হতে পারে। ট্রাস্ট অব ওয়েস্ট বেঙ্গলের অ্যাডমিনিস্ট্রেটর জেনারেল অফিসিয়াল বিপ্লব রায় জানিয়েছেন, নাকাশিপাড়া থানা এলাকা থেকে যে মূর্তিগুলি উদ্ধার হয়েছে সেগুলি আনুমানিক হাজার বছর পুরনো এবং পাল রাজাদের রাজত্বকালের শেষ দিকের হতে পারে। পরীক্ষা করে দেখা গেছে এই মূর্তিগুলি তৈরি হয়েছে দুষ্প্রাপ্য কষ্টি পাথর দিয়ে।

img 20230911 12004690

 

ভারতীয় বাজারে এগুলির আনুমানিক মূল্য ৮ কোটি টাকারও বেশি। আমরা যে স্টেট জুডিশিয়াল মিউজিয়াম তৈরি করতে চলেছি সেখানে এই মূর্তিগুলি সংরক্ষণ করা হবে। ভবিষ্যতে সাধারণ মানুষদের দেখার জন্য এই মূর্তিগুলি সাজানো থাকবে। এছাড়াও গবেষকদের গবেষণার জন্য এই মূর্তিগুলো সহায়ক হবে বলে আশা।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর