২৮ ঘন্টা পার! ‘দলবদলু’ বিধায়ক তন্ময় ঘোষের রাইস মিলে জারি আয়কর হানা, কী হচ্ছে ভেতরে?

   

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ২৮ ঘন্টা পার। বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের (Bankura) বিধায়ক তথা ব্যবসায়ী তন্ময় ঘোষের (MLA Tanmoy Ghosh) রাইস মিলে এখনও জোর তল্লাশি চালাচ্ছে আয়কর দফতরের (IT Raid)। গতকাল বুধবার সকাল ১১টায় আয়কর দফতরের প্রতিনিধিরা বিধায়কবাবুর মিলে ঢোকেন। সেই থেকেই চলছে তল্লাশি। যা এখনও অব্যাহত।

আয় বহির্ভূত সম্পত্তির অভিযোগে চলছে ম্যারাথন তল্লাশি। বুধবার সকালে প্রথমে বিধায়কের বাড়ি, দপ্তর এবং মদের দোকানে হানা দেয় আয়কর দপ্তরের আধিকারিকরা। তারপর একজোটে চূড়ামণিপুরের চালকলে ঢোকে পাঁচ আয়কর আধিকারিক। তারপর থেকে চলছে তল্লাশি।

জানা যাচ্ছে, রাইস মিলে ঢুকে সমস্ত লেনদেনের নথিপত্র খতিয়ে দেখছেন আয়কর দফতরের আধিকারিকরা। তাতেই এতটা সময় লাগছে। এদিন সকাল সাড়ে ৮টা নাগাদ রাইস মিলে পৌঁছন বিধায়ক। এরপর দুপুর তিনটের কিছু আগে বেরিয়েও যান। তবে বেরোনোর সময় কোনও কথা বলেননি। মুখে কুলুপ এঁটেছেন বিধায়ক। ওদিকে আয়কর তল্লাশি শুরুর পর থেকেই বন্ধ বিধায়কের মোবাইল ফোন।

আরও পড়ুন: বড় খবর! দুমাসের মধ্যেই শেষ করতে হবে সমস্ত নিয়োগ মামলার তদন্ত, বিরাট নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট

প্রসঙ্গত, তৃণমূলের এই ব্যবসায়ী বিধায়ক একসময় বিজেপিতে ছিলেন। সেই ২০১৫ সালে রাজনীতিতে যোগ দেন তিনি। প্রথম থেকে তৃণমূলেই ছিলেন। বিষ্ণুপুর পুরসভার কাউন্সিলর হন, প্রশাসকমণ্ডলীতেও জায়গা পান পরে। দল তাকে বিষ্ণুপুরের যুব তৃণমূলের সভাপতির পদও দিয়েছিল।

tmc flag

তবে ২০২১ সালে বিধানসভা নির্বাচনে সময় কাটে তাল। বিষ্ণুপুর বিধানসভায় তার বদলে দল প্রার্থী করে অর্চিতা বিদকে। এর পরই রাগে-অভিমানে বিজেপিতে যোগ দেন নেতা। বিজেপিতে গিয়ে কপাল ও খোলে। বিজেপির টিকিটে ওই কেন্দ্র থেকেই জয়লাভ করেন তিনি। তবে চলতি বছর অগস্ট মাসে ফের তৃণমূলে ফেরেন বিধায়ক।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর