টাইমলাইনটেক নিউজভারত

দেশীয় কোম্পানিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার তোরজোড়, ভারতে নিষিদ্ধ হতে চলেছে চীনের সস্তার স্মার্টফোন

বাংলাহান্ট ডেস্ক : ভারতের বাজারে সস্তা স্মার্টফোনের বাজার দখল করে রেখেছে xiaomi, vivo, oppo oneplus ইত্যাদি কোম্পানিগুলি। এবার ভারত সরকার চাইছে চীনা কোম্পানির গুলিকে ভারতের বাজারে ব্যবসার ক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রণ করতে। একটি সূত্র মারফত জানা যাচ্ছে, ভারত সরকারই চাইছে ভারতের বাজারে ১২ হাজার টাকা বা ১৫০ ডলারের নিচে চাইনিজ স্মার্টফোনগুলির বিক্রি নিষিদ্ধ করতে। এর প্রধান উদ্দেশ্য হিসেবে ভাবা হচ্ছে, মাইক্রোম্যাক্স ,লাভা ইত্যাদির মতো দেশীয় প্রযুক্তির মোবাইল ফোন কোম্পানিগুলির বিক্রিকে ত্বরান্বিত করা।

এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারত সরকার দেশীয় স্মার্টফোন নির্মাতাদের উৎসাহিত করতে চায়। যদি এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, তবে এটি নিঃসন্দেহে চাইনিজ ফোন বিক্রয়কে প্রভাবিত করবে। একটি রিপোর্ট অনুযায়ী ভারতে মোট স্মার্টফোন ব্যবহারকারীর মধ্যে ৮০ শতাংশ স্মার্টফোন ব্যবহারকারী ব্যবহার করেন চাইনিজ কোম্পানির ব্র্যান্ড। এর ফলে একটা মোটা অংশের মুনাফা চলে যায় চীন দেশে। মুখ তুলে দাঁড়াতে পারে না দেশীয় কোম্পানিগুলি।

ভারত সরকারের এই সিদ্ধান্ত অ্যাপেল বা স্যামসাংয়ের মতো কোম্পানিগুলির উপর পড়বে না। প্রথমত 12000 টাকার নিচে তাদের খুব একটা ভালো ফোন নেই আর অন্যদিকে তারা চীনের কোম্পানি নয়।

এই প্রথম নয় এর আগেও চীনের সাথে বেশ কিছু অ্যাপ বন্ধ করা নিয়ে বিরোধ বেঁধে ছিল ভারতের। ভারত সরকারের নির্দেশে প্লে স্টোর থেকে বেশ কিছু চীনা অ্যাপকে সরিয়ে ফেলে গুগল। সেই তালিকায় tiktok, pubg এর মত জনপ্রিয় অ্যাপও ছিল।

প্রসঙ্গত লাভা, মাইক্রোম্যাক্স ইত্যাদির মত ভারতীয় মোবাইল ফোন কোম্পানিগুলি একের পর এক মডেল লঞ্চ করলেও বিশেষ সাড়া পাচ্ছিল না। সস্তায় সঙ্গে আকর্ষণীয় ডিজাইন এর মোবাইল ফোন তৈরি করে সিংহভাগ স্মার্টফোন বাজার দখল করে রেখেছিল চীনা কোম্পানিগুলি। সরকারের এই সিদ্ধান্তে ভারতীয় কোম্পানিগুলির ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল হয় কিনা এখন সেটাই দেখার।

Related Articles