সমুদ্রের রহস্য হবে আরও সহজ! ভারতীয় নৌবাহিনীর হাতে এল নয়া সার্ভে ভেসেল, খুঁজে আনবে অজানা তথ্য

বাংলা হান্ট ডেস্ক : গত রবিবার কলকাতায় (Kolkata), ‘গার্ডেনরিচ শিপবিল্ডার্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ার্স লিমিটেড’ তৈরী হল “আইএনএস সন্ধ্যায়ক”। কলকাতায় সেদিন চারটি বড়ো জাহাজের মধ্যে প্রথম ‘সন্ধ্যাক’ চালু করা হয়েছিল। জাহাজটি উদ্বোধন করেন, প্রতিরক্ষা প্রতিমন্ত্রী অজয় ভাটের স্ত্রী পুষ্প ভাট, তিনি সেদিনের অনুষ্ঠানে স্পেশাল অথিতি হয়ে এসেছিলেন। গত সোমবার ভারতের দীর্ঘতম ‘সার্ভে ভেসেল’ ভারতীয় নৌবাহিনীর (Indian Navy) হাতে তুলে দেওয়া হলো। সেই সোমবার নৌবাহিনী দিবসও পালন করা হয়। এই ভেসেলের মাধ্যমে সমুদ্রের তলায় বিভিন্নধরণের সমীক্ষা করা সম্ভব ।

   

পূর্বে নৌবাহিনীতে ‘আইএনএস সন্ধ্যায়ক’ নামক জাহাজটি আগেও সার্ভে ভেসেল ছিল। ১৯৮১ সালে এটি ভারতীয় নৌবাহিনীর সাথে যুক্ত ছিল। আর ২০২১ সালে অবসর নেই এই জাহাজটি। যা সোমবার ভারতীয় নৌবাহিনীর হাতে তুলে দেওয়া হয়। যার দীর্ঘ প্রায় ১১০ মিটার।

২০২১ সালে শুরু হয় “আইএনএস সন্ধ্যায়ক” এর পথ চলা। তারপর থেকেই সেটিকে নিয়ে নানা পরীক্ষা নিরীক্ষা চলতে থাকে। ভারতীয় নৌসেনার জন্য ৪টি ভেসেল তৈরী করেছে ‘গার্ডেনরিচ শিপবিল্ডার্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ার্স লিমিটেড’। যা ভারতীয় নৌবাহিনীর হাথে তুলে দেওয়া হয়েছে।

কি কি কাজ করা যাবে এই জাহাজের দ্বারা? আধিকারিকরা জানিয়েছেন, সমুদ্রের তলায় সমীক্ষা শুরু করতে পারবে, জাহাজ কোন পথ ধরে চলছে তা খুঁজে বের করা সম্ভব। এই শ্রেণীর জাহাজের মাধ্যমে বিভিন্ন ভৌগোলিক তথ্য বের করা সম্ভব।তার ফলে ভারতীয় নৌসেনার হাত মজবুত হবে বলে দাবি করেছেন।

hms echo 1 1

শুধু এটুকুই নয়, তারা এটাও জানিয়েছেন, যে ১টি হেলিকপ্টার নিয়ে যেতে পারে, “আইএনএস সন্ধ্যায়ক”। ছোটোখাটো নানান ক্ষেত্রেই এটি অংশগ্রহণ করতে পারবে। দুর্যোগমূলক কার্যে ব্যাবহার করা সম্ভব। সেখানেও চিকিৎসার ব্যবস্থা করা যাবে বলে জানিয়েছেন আধিকারিকারা।