জারিজুরি শেষ! INS কলকাতার দাপটে নতজানু জলদস্যুরা, ৩৫ জনকে ধরে আনা হল ভারতে

বাংলাহান্ট ডেস্ক : সোমালিয়ার জলদস্যুর দল হার মানল ভারতীয় নৌসেনার কাছে। ভারতীয় নৌসেনার জাহাজ আইএনএস কলকাতা পণ্যবাহী জাহাজ আইএনএস রুয়েনকে গত শনিবার উদ্ধার করেছে। ১৭ জন ক্রু-কে উদ্ধার করা হয় ওই জাহাজ থেকে। ভারতীয় নৌ সেনার কাছে ৩৫ জন সোমালিয়ান জলদস্যু আত্মসমর্পণ করে।

   

এই ঘটনার ঠিক এক সপ্তাহ বাদে সোমালিয়ান জলদস্যুদের নিয়ে আজ মুম্বাই পৌঁছাল আইএনএস কলকাতা। মুম্বাই পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে ধৃতদের। ভারতীয় নৌসেনার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আইএনএস কলকাতা অপারেশন সংকল্পের অধীনে অভিযান চালায় সোমালিয়ার উপকূলে।

আরোও পড়ুন : হাওড়ায় রেল আর মেট্রো স্টেশনকে জুড়তে বড়সড় প্ল্যানিং! যাতায়াতের সুবিধা বাড়বে যাত্রীদের

জলদস্যুদের হাতে আটকে থাকা একটি জাহাজ তারা উদ্ধার করে। ৩৫ জন জলদস্যুকে আটক করা হয়।আইএনএস কলকাতা মুম্বাই এসে পৌঁছেছে শনিবার। মুম্বাই পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে ধৃত জলদস্যুদের। মেরিটাইম অ্যান্টি পাইরেসি অ্যাক্ট ২০২২-র অধীনে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে জলদস্যুদের বিরুদ্ধে।

আরোও পড়ুন : ফের একবার নক্ষত্র পতন টলিউডে! চির ঘুমের দেশে বর্ষীয়ান অভিনেতা পার্থসারথি দেব

আরব সাগর ও গাল্ফ অব এডেনের নিরাপত্তা ও অনুপ্রবেশ রোধের জন্য মোতায়েন করা রয়েছে ভারতীয় সেনা। এই অভিযানের নাম দেওয়া হয়েছে অপারেশনের সংকল্প। বলা বাহুল্য, ২০১০-১১ সালের দিকে মাত্রা ছাড়ায় জলদস্যুদের দৌরাত্ম্য। জলদস্যুদের উৎপাত ভাবিয়ে তোলে পুরো বিশ্বকে।

pti03 23 2024 000036b

গত ১৫ ই মার্চ সাহায্যের বার্তা পায় আইএনএস কলকাতা। সোমালিয়ার উপকূল থেকে বার্তা পাঠানো হয় আরব সাগরে মাল্টার এমভি রুয়েন সাহায্যের জন্য। ৪০ ঘন্টা ধরে অভিযান চালায় ভারতীয় নৌসেনার আইএনএস কলকাতা। সেখান থেকে উদ্ধার করা হয় প্রায় ১৭ জন ক্রু-কে। আইএনএস সুভদ্রাও সাহায্য করে এই উদ্ধারকার্যে।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর