টাইমলাইনভারত

স্বাভাবিক পরিষেবা চালু হলে বাতিল হবে বহু প্যাসেঞ্জার ও এক্সপ্রেস ট্রেন, মধ্যবিত্তের পকেটে পড়বে টান

ভারতীয় রেলের (indian railway) তরফে এখনো জানানো হয় নি ঠিক কবে থেকে স্বাভাবিক হবে পরিষেবা। তবে জানা যাচ্ছে রেল পরিষেবা ফের চালু হলে বাতিল হতে পারে প্রচুর প্যাসেঞ্জার ও এক্সপ্রেস ট্রেন। খুব শীঘ্রই নয়া টাইম টেবিল চালু করবে রেল, যার নাম দেওয়া হয়েছে `জিরো বেসড’ টাইম টেবিল। যার ফলে আমূল বদলে যাবে মেল ও এক্সপ্রেস ট্রেন চলাচলের পদ্ধতি।

রেল সূত্রে জানা যাচ্ছে, ৩৬০টি প্যাসেঞ্জার ট্রেনকে এক্সপ্রেস ট্রেনে বদল করা হবে। পাশাপাশি ১২০টি এক্সপ্রেস ট্রেনও বদলে যাবে সুপার ফাস্ট ট্রেনে। আর তার ফলেই স্টপেজ কমে যেতে পারে ১০ হাজারের বেশি। রেল সূত্রে জানা যাচ্ছে কেন্দ্র সরকার রেল চালানোর অনুমতি দিলেই এই সংক্রান্ত নির্দেশিকা জারি করা হবে। আপাতত প্রায় চূড়ান্ত রেলের নয়া নিয়ম।

রেল সূত্রে জানা যাচ্ছে, ভারতের ৭ হাজার স্টেশনে মাত্র ১০ থেকে ১৫ শতাংশ বর্ধিত ইউজার চার্জ বসাবে ভারতীয় রেল। আগামী কয়েক বছরে যাত্রী সংখ্যা হু হু করে বাড়বে। সেই কথা মাথায় রেখেই রেল যাত্রী স্বাচ্ছন্দ্য বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সেই কারনেই এই ইউজার চার্জ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷

ইউজার চার্জ হিসাবে যাত্রীদের থেকে নেওয়া হবে ১০ থেকে ৩৫ টাকা। এসি ১ কামরায় যাত্রার ক্ষেত্রে কম করে ৩০ টাকা চার্জ দিতে হবে। পাশাপাশি, আত্মীয় বা পরিচিতকে ট্রেনে তুলে দিতে বা স্টেশন থেকে আনতে গেলেও গুনতে হবে অতিরিক্ত টাকা। প্ল্যাটফর্ম টিকিটের বাইরে এই অতিরিক্ত চার্জ দিতে হবে প্রত্যেককে।

পাশাপাশি বহু দিন ভাড়া বাড়ে নি সাব-আরবান ট্রেনে। সূত্র থেকে জানা যাচ্ছে, খুব শীঘ্রই ট্রেনের মাসিক টিকিটের দাম বাড়াতে চলেছে রেল। রেল সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই এই প্রস্তাব প্রস্তুত করা হয়েছে। মন্ত্রিসভার অনুমোদনের সাথে সাথেই ঘুরপথে ভাড়া বাড়াবে ভারতীয় রেল।

 

 

Back to top button