হাওড়া ঢোকার মুখে লাইনচ্যুত ট্রেন, আতঙ্কে যাত্রীরা! ব্যাহত রেল পরিষেবা, কখন হবে স্বাভাবিক?

বাংলা হান্ট ডেস্ক : বুধবার সাত সকালে ট্রেন ভোগান্তি। অফিস টাইমেই বন্ধ হল রেল (Indian Railways) পরিষেবা। হাওড়ার (Howrah) টিকিয়াপাড়া কারশেডের কাছে আবারও লাইনচ্যুত হল লোকাল ট্রেন (Local Train)। রেল সূত্রে খবর, ট্র্যাক বদলাতে গিয়েই ঘটে যায় অঘটন। অফিস টাইমে এই ঘটনা ঘটায় দুর্ভোগে পড়েন নিত্যযাত্রীরা। পরে ট্রেন থেকে নেমে রেললাইন ধরে ঝুঁকি নিয়ে পারাপার রেল যাত্রীরা।

   

সূত্রের খবর বুধবার সকাল ৮ টা ৫৫ মিনিট নাগাদ এই ঘটনা ঘটেছে। লোকাল ট্রেনটি তখন বাগনান থেকে হাওড়া আসছিল। এরপর হাওড়া স্টেশন সংলগ্ন টিকিয়াপাড়া কারশেডের কাছে আসতেই ঘটে যায় দুর্ঘটনা। স্টেশনের ১৪ নম্বর প্লাটফর্মে ঢোকার আগেই বাঙ্গাল বাবু সেতুর কাছে লাইনচ্যুত হয়ে যায় বগি। ভালো খবর এটাই, এই আকষ্মিক দুর্ঘটনায় কোনও হতাহতের খবর আসেনি।

ঘটনা প্রসঙ্গে পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক কৌশিক মিত্র জানিয়েছেন, দুর্ঘটনার খবর পৌঁছানো মাত্রই ঘটনাস্থলে পৌঁছে গেছেন রেল আধিকারিক এবং রেলের ইঞ্জিনিয়াররা। শুরু হয়ে গেছে ট্র্যাক ঠিক করার কাজ। তবে রেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, লাইন স্বাভাবিক হতে আরও কিছুটা সময় লাগবে। কারণ ডাউন লাইনের পরিষেবা এখনও স্বাভাবিক হয়নি।

আরও পড়ুন : বোনে-বোনে এত হিংসে! রক্তের সম্পর্ক থাকলেও এই কারণে রানীকে সহ্য করতে পারেননা কাজল

ঘটনাপ্রসঙ্গে অফিস যাত্রী অরিন্দম পাল বলেন, ‘টিকিয়াপাড়া কারশেডের কাছে আসলে সাধারণ ট্রেনের গতি ধীর হয়ে যায়। এদিনও তাই হয়েছিল। হাওড়া স্টেশনের ১৪ নম্বর প্ল্যাটফর্মে ঢোকার মুখে হঠাৎ করেই ট্রেনে মৃদু ঝাঁকুনি লাগ এবং ট্রেনটি থেমে যায়। ট্রেনের যাত্রীদের মধ্যে এই নিয়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছিল। আমরাও ভয় পেয়ে যাই। পরে জানতে পারি ট্রেনের একটি কামরা লাইনচ্যুত হয়েছে। ভাগ্যিস ট্রেনের গতি কম ছিল। নইলে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারত।’

আরও পড়ুন : উপড়ে গিয়েছে বিদ্যুতের খুঁটি, রাস্তা যেন নদী! ঘূর্ণিঝড় মিগজাউমের তাণ্ডবে জলের তলায় চেন্নাই, মৃত ১৭

indian railways

অপর এক মৌসুমী সমাদ্দারের কথায়, ‘হঠাৎ করেই ঝাঁকুনি অনুভব করি। তারপরই ট্রেন থেমে যায়। একে একে দেখি যাত্রীরা ট্রেন থেকে নামতে শুরু করেছেন। লাইন ধরে হেঁটে তাঁরা হাওড়া স্টেশনে যাচ্ছেন। আমি আর বন্ধুও তখন ট্রেন থেকে নেমে হেঁটে হাওড়াতে পৌঁছেছি। জানি না পরিষেবা কখন স্বাভাবিক হবে। প্রায় দিনই কিছু না কিছু ঘটেই চলেছে।’

সম্পর্কিত খবর