উৎসবের মরশুমে দারুণ সুখবর দিল ভারতীয় রেল! বুধবার থেকে বাংলার এই রুটে নয়া বন্দে ভারত

বাংলা হান্ট ডেস্ক : কর্মসূত্রে মানুষকে কোথায় না কোথায় যেতে হয়। তবে সারা বছরটা যেখানেই কাটুক না কেন, পুজোর সময়টা সবাই ফিরে আসে পরিবারের কাছে। এই সময়টা বাড়ি ফিরতে না পারলে যেন সবটাই মাটি। সারা বছর বাড়ির বাইরে থাকার অভাবটা মানুষ এই পুজো পার্বনেই পুষিয়ে নিতে চায়। তবে ট্রেনের টিকিটের কারণে অনেককেই সমস্যাতেও পড়তে হয়।

বিশেষ করে উত্তরবঙ্গ এবং দক্ষিণবঙ্গের মানুষদের মধ্যে একটা অদৃশ্য ঝামেলা লেগেই থাকে। আর সেটা হয় মূলত ট্রেনের টিকিটের জন্য। দক্ষিণবঙ্গের মানুষ যখন পুজোর সময় উত্তরবঙ্গ ঘুরতে যেতে চায়, সেখানে উত্তরবঙ্গের মানুষের থাকে বাড়ি ফেরার তাড়া। তবে এবার বোধহয় সেই সমস্যা খানিকটা মিটল। যাত্রী সুবিধার্থে নয়া উদ্যোগ নিল ভারতীয় রেল।

   

সূত্রের খবর, ভাইফোঁটা, ছট উপলক্ষ্যে প্রতি বুধবার হাওড়া – নিউ জলপাইগুড়ি বন্দে ভারত (Vande Bharat) বিশেষ ট্রেন চালানোর ব্যবস্থা করেছে ভারতীয় রেল (Indian Railways)। পূর্ব রেল জানাচ্ছে, এবার থেকে প্রতি বুধবার ভোর ৫টা ৫৫ মিনিটে ০২৩০১ হাওড়া-নিউ জলপাইগুড়ি বন্দে ভারত স্পেশাল ট্রেনটি ছাড়বে। ওদিকে বেলা ১টা ২৫ মিনিট নাগাদ ট্রেনটি নিউ জলপাইগুড়ি পৌঁছাবে।

আরও পড়ুন : হবু বরের বুকে মাথা দিয়ে আদুরে ছবি! বিছানায় অন্তরঙ্গ হয়ে ভিডিও পোস্ট করলেন নন্দিনী দিদি

এরপর ০২৩০২ নিউ জলপাইগুড়ি-হাওড়া বন্দে ভারত স্পেশাল নিউ জলপাইগুড়ি থেকে বের হবে বেলা ৩টার দিকে। গাড়িটি হাওড়া ঢুকবে ১০টা ৩৫ মিনিটে। আর এই গোটা যাত্রাপথে মোট ৩টি স্টেশনে হল্ট করবে ট্রেনটি। স্টেশনগুলি যথাক্রমে, বোলপুর, মালদা টাউন এবং বারসই। তাই যারা পুজোর মরশুমে দার্জিলিং ঘুরে আসতে চান তাদের জন্য এটি দারুণ সুযোগ।

আরও পড়ুন : মাস্টারস্ট্রোক মোদীর! আসছে ২৪ হাজার কোটি টাকার স্কিম, বিশেষ সুবিধা পাবেন দেশের কোটি কোটি জনতা

Big changes are coming to Vande Bharat

উল্লেখ্য, এমনিতে ২২৩০১/২২৩০২ হাওড়া-নিউ জলপাইগুড়ি-হাওড়া বন্দে ভারত এক্সপ্রেস চলে সপ্তাহের ছয়দিনই। বুধবার দিন বন্ধ থাকে পরিষেবা। তবে এবার সেই সমস্যা মিটল। এরফলে ট্রেনের ৬৭৬৮ সিটও বাড়বে। ভারতীয় রেলওয়ে এই প্রসঙ্গে জানাচ্ছে, যাত্রীদের আরামদায়ক পরিবহনের কথা মাথায় রেখেই রেলের এই নয়া সিদ্ধান্ত।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর