মায়ানমারে এয়ারস্ট্রাইক! ভারতে ঢুকল ২ হাজার নাগরিক! ভয়ানক যুদ্ধ পড়শি দেশে

বাংলা হান্ট ডেস্ক: মায়ানমারের (Myanmar) চীন (Chin) রাজ্যে ভয়াবহ বিমান হামলা ও ভয়াবহ গুলিবর্ষণের পর গত ২৪ ঘণ্টায় সেখান থেকে  দু’হাজরেরও বেশি নাগরিক আন্তর্জাতিক সীমান্ত দিয়ে ভারতের মিজোরাম রাজ্যে (Mizoram) প্রবেশ করেছে। সোমবার এক কর্মকর্তা এ তথ্য জানিয়েছেন। মায়ানমারের চীন রাজ্যের সঙ্গে সীমান্তবর্তী মিজোরামের চাম্পাই জেলার ডেপুটি কমিশনার জেমস লালরিঞ্চনা সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে বলেছেন যে রবিবার সন্ধেয় মায়ানমারের ক্ষমতাসীন জান্তা-সমর্থিত সেনাবাহিনী এবং মিলিশিয়া গ্রুপ পিপলস ডিফেন্স ফোর্সের মধ্যে তীব্র গোলাগুলি হয়েছে। ব্যাপক খণ্ডযুদ্ধ হয় দু’পক্ষের।

তিনি জানান, পিডিএফ ভারতীয় (Indian) সীমান্তের কাছে অবস্থিত মায়ানমারের চীন রাজ্যের খাওমাউই ও রিখাওদারে সামরিক হামলা চালায়, যার জেরে তীব্র সংঘর্ষ শুরু হয়। আর ঈদ জেগে ই খাওয়ামাভি রেখা উদার এবং চীন থেকে দু’হাজার জনেরও বেশি মায়ানমারের নাগরিক ভারতীয় সীমান্ত অতিক্রম করে মিজোরামের চাম্পাই জেলার জোখাওথারে আশ্রয় নিয়েছে।

পিপলস ডিফেন্স ফোর্স (PDF) সোমবার ভোরে মায়ানমারে রিখাওদার সামরিক ঘাঁটির নিয়ন্ত্রণ নেয়। এবং বিকেলের মধ্যে খাওমাউই ঘাঁটিরও নিয়ন্ত্রণ নেয়। প্রতিশোধ হিসেবে সোমবার খাওমাউই এবং রিখাওদার গ্রামে বিমান হামলা চালায় মায়ানমারের সেনাবাহিনী গুলিতে অন্তত ১৭ জনকে চিকিৎসার জন্য চাঁপাইতে নামানো হয়েছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, জোখাওথারে ৫১ বছর বয়সি এক মায়ানমার নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে। সীমান্তের ওপার থেকে আসা একটি বুলেটে তিনি জখম হন, কিছুক্ষণ পর তাঁর মৃত্যু হয়।

myanmar war (1)

এদিকে এসবের জেরে, ভারতে (India) প্রায় দু’হাজারেরও বেশি মায়ানমারের নাগরিক ভারতে অনুপ্রবেশ করেছে। যার জেরে মিজোরামেও পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে। গোটা ঘটনার বিষয়ে নজর রাখছে কেন্দ্র।