fbpx
টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

বিপদে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন মমতা বানার্জী, কৃতজ্ঞতা জানালেন বাম বিধায়ক,

করোনা আতঙ্কে গৃহবন্দি গোটা দেশ। বন্ধ হয়ে গিয়েছে আন্তঃরাজ্য যান চলাচল। যার ফলে বিপাকে পড়েছেন বহু মানুষ। শুধু সাধারণ মানুষ নয় বিপাকে পড়েছেন নেতা-নেত্রীরাও। লকডাউন এর জেরে নিজের ভাই এর মৃতদেহ আনতে পারছেন না বাম বিধায়ক জাহানারা খান, ঘটনা জানতে পেরে উদ্যোগী হন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী (Mamata Banerjee)।

জানা যাচ্ছে, 17 ই মার্চ ভাই আমজাদ কে নিয়ে ভেলোরে চিকিৎসা করাতে যান সিপিএম বিধায়ক। পরীক্ষার পর তার পায়ের বোন ম্যারো তে ক্যান্সার ধরা পড়ে। 26 শে মার্চ তার অপারেশন হয়। 28 শে মার্চ গভীর রাতে তিনি মারা যান। কিন্তু ততক্ষণে দেশজুড়ে চালু হয়ে গেছে লকডাউন।

এরপর দেহ আনতে চরম বিপাকে পড়েন সিপিএম বিধায়ক। বাম পরিষদীয় দলনেতা  সুজন চক্রবর্তীর সঙ্গে যোগাযোগ করেন জাহানারা। সুজনবাবুর পরামর্শেই জাহানারা সরাসরি ফোন ক্রেবজ মুখ্যসচিব রাজীব সিনহাকে। গোটা বিষয়টি জানতে পেরে মুখ্যমন্ত্রী আসানসোলের পুলিশ কমিশনারকে সমস্ত ব্যবস্থা করার নির্দেশ দেন। আসরে নামেন আসানসোলের মেয়র জিতেন তিওয়ারিও। প্রত্যেকের মিলিত প্রচেষ্টায় আমজাদকে গ্রামে নিয়ে আসা সম্ভব হয়।

আসানসোলের পুলিশ কমিশনারের দফতর থেকে যোগাযোগ করা হয় চেন্নাই পুলিশের সঙ্গে। চেন্নাই পুলিশ অ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করে দেহ পাঠানোর উদ্যোগ নেন। মঙ্গলবার ভাইয়ের দেহ নিয়ে ফেরেন জাহানারা। মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে জাহানারা বলেন, মুখ্যমন্ত্রী ও পুলিশ কমিশনারের কাছে তিনি চিরকৃতজ্ঞ।

Back to top button
Close
Close