SSC মামলায় রায় খারিজের আর্জি! প্রাক্তন জাস্টিস গাঙ্গুলির নির্দেশের বিরুদ্ধে হাই কোর্টে চাকরিহারারা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ নিয়োগ মামলায় নয়া মোড়! এসএসসি (SSC Recruitment) নিয়োগ সংক্রান্ত মামলায় বিচারপতি হিসাবে অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় (Justice Abhijit Gangopadhyay) এতদিন যে সমস্ত নির্দেশ দিয়েছেন সেসব খারিজের দাবি জানিয়ে এবার কলকাতা হাই কোর্টের (Calcutta High Court) দ্বারস্থ চাকরিচ্যুতদের একাংশ। সম্প্রতি বিচারপতি পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। আজই যোগদান করছেন বিজেপিতে। এই আবহে প্রাক্তন বিচারপতির দেওয়া নির্দেশ খারিজের আর্জি।

   

বিচারপতি পদে থাকাকালীন গ্ৰুপ-সি, গ্ৰুপ-ডি, নবম-দশম ও একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির নিয়োগ মামলায় একাধিক নির্দেশ দিয়েছিলেন অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। এর মধ্যে নবম-দশম, গ্রুপ সি ও গ্রুপ ডি-র চাকরিহারাদের একাংশ বিচারপতি দেবাংশু বসাকের ডিভিশন বেঞ্চের দ্বারস্থ হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার এই মামলার শুনানির সম্ভাবনা।

মামলাকারীদের দাবি, বিচারপতি পদে থাকাকালীন রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নিয়ে, নিজের একটা ভাবমূর্তি গড়ে তোলার স্বার্থে রায় দিয়েছেন অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। কখনই ‘নিরপেক্ষভাবে’ বিচার করেননি। তাই বিচারপতি থাকাকালীন গঙ্গোপাধ্যায় যে নির্দেশগুলি দিয়েছিলেন সেগুলি খারিজের দাবি জানিয়ে আদালতের দ্বারস্থ চাকরিহারাদের একাংশ।

শিয়রে লোকসভা নির্বাচন। তার আগে গত রবিবার হঠাৎই কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতির পদ থেকে অবসরের সিদ্ধান্তের কথা জানান অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। কথা মতই ৬ তারিখে ইস্তফা দেন অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। এর পরই সাংবাদিক বৈঠক ডেকে ঘটা করে বিজেপিতে যোগদানের কথা জানান সদ্য প্রাক্তন বিচারপতি।

bjp justice

আরও পড়ুন: ধেয়ে আসছে ঝড়-বৃষ্টি! আগামী ২-৩ ঘণ্টায় বজ্রবিদ্যুত্‍-সহ বৃষ্টি দক্ষিণবঙ্গের এই সব জেলায়

শুধু তাই নয়, লোকসভা ভোটেও যে তিনি লড়তে পারেন সেই আভাসও মেলে প্রাক্তন বিচারপতির কথায়। তবে কোন কেন্দ্র থেকে তিনি ভোট ময়দানে নামবেন সেই বিষয়ে কিছু বলতে চাননি তিনি।যেই বিচারপতি নিয়োগ দুর্নীতির একাধিক মামলায় নিজের রায়ের জন্য চাকরিপ্রার্থীদের একাংশের কাছে ‘ভগবান’ হয়ে ওঠেন, লোকসভা নির্বাচনের ঠিক আগে সেই ব্যক্তিত্বের রাজনীতিতে যোগদান নিয়ে স্বাভাবিকভাবেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে গোটা রাজ্যে।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর