টাইমলাইনবিনোদনরাজনীতি

‘মুসলিমবিদ্বেষী, এনআরসি পন্থী’ বাবুল সুপ্রিয় এখন তৃণমূলে, পুরনো ঝগড়া নিয়ে তীব্র কটাক্ষ কবীর সুমনের

বাংলাহান্ট ডেস্ক: সপ্তাহান্তে গেরুয়া শিবিরকে বড়সড় ঝটকা দিয়ে সবুজ শিবিরে এসে ভিড়েছেন বাবুল সুপ্রিয় (babul supriyo)। দল বদলাব না বদলাব না করেও শেষে গোটা ফুলটাই বদলে ফেলেছেন। প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর এমন ভেলকিতে জোর চমকেছে তাবড় রাজনীতিকরা। অভিষেক বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়রা সাদরে আমন্ত্রণ জানালেও বাবুলের আগমনে কিছুটা নাখুশ তৃণমূলের একাংশ। তালিকায় রয়েছেন কবীর সুমনও (kabir suman)।

তৃণমূলের এই প্রাক্তন সাংসদ তথা বর্ষীয়ান সঙ্গীতশিল্পীর সঙ্গে বাবুল সুপ্রিয়র পুরনো ‘সম্পর্ক’। একাধিক বার আদায়-কাঁচকলায় লাগতে দেখা গিয়েছে দুজনকে। একসময় যে বাবুল তৃণমূলের বিরুদ্ধে একের পর এক অভিযোগ তুলেছেন, কড়া মন্তব‍্য করেছেন তিনিই এখন ভোল বদলে চলে এসেছেন ঘাসফুলে। বিষয়টা মন থেকে মানতে পারেননি সুমন।

ফেসবুকে লম্বা পোস্টে তিনি লিখেছেন, ‘বিজেপি সাংসদ ও মন্ত্রী শ্রীযুক্ত বাবুল সুপ্রিয় কিছুকাল আগে আমায় নিয়ে ফেসবুকে ঠাট্টা করেছিলেন মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী শ্রীমতী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সম্পর্কে স্থুল ইঙ্গিতপূর্ণ কথা লিখে। লিখেছিলেন “আপনার মমতাময়ী”। আমি তাঁকে কোনও কটুক্তি করিনি। আজ তিনি তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন সশব্দে। তৃণমূলের বড় বড় নেতা তাঁকে বরণ করে নিয়েছেন। আমি তৃণমূলের সমর্থক। সদস্য নই। তৃণমূল দল কাকে টেনে নেবেন সেটা একান্তই তাঁদের ব্যাপার।

শুধু, “আপনার মমতাময়ী” বলে গায়ে পড়ে বিদ্রুপ করা এই মুসলিমবিদ্বেষী, এন আর সি পন্থী, বাংলা ও বাঙালি বিদ্বেষী বাবুল সুপ্রিয় মহোদয় এখন “তাঁর মমতাময়ী” সম্পর্কে কী ভাবছেন তৃণমূলে তাঁর কাছের মানুষরা হয়তো জানতে চাইছেন।’


একা বাবুল নয়, এক তীরে আরো দুই শিল্পীকে বিঁধেছেন কবীর সুমন। তাঁরা নচিকেতা ও শ্রীজাত। এই পোস্টেই তিনি লিখেছেন, ‘আমাকে যাঁরা স্রেফ গায়ে পড়ে অপমান করে গেছেন, যেমন শ্রী নচিকেতা চক্রবর্তী এবং শ্রী শ্রীজাত বন্দ্যোপাধ্যায় – তাঁদের সঙ্গে আর-একটি নাম যুক্ত হলো। এই তিনজনের একজনকেও আমি অপমান বা আক্রমণ করিনি। তিনজনেই গায়ে পড়ে আমায় অপমান করেছেন। ২০০৫/৬ সাল  থেকে দীর্ঘকাল সি পি আই এম বিরোধী গণ আন্দোলনে সামিল ছিলাম। এঁরা?’


এখানেই থামেননি সুমন। তাঁর কথায়, ‘যা বুঝলাম যে যখন চাইবে আমায় অপমান করবে এই রাজ্যে। কিন্তু ইংরিজিতে একটা কথা আছে : “Every dog has his day.” আমার দিনও আসবে। কোনও দল বা নেতারা যেন না ভাবেন আমি দুর্বল এবং একা। আমি দুর্বলও নই একাও নই। আত্মমর্যাদার ওপরে কিছুই নয়, কেউ নয়। ফেরত দিয়ে তবে মরব। আমার বয়স হয়ে গেছে, কিন্তু এখনও দুর্বল নই। এবং আমি একা নই। যা পেয়েছি তা ফেরত দিয়ে তবে মরব।’

বাবুল সুপ্রিয়কে উদ্দেশ করে তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্রের একটি সৌজন‍্যমূলক টুইট উল্লেখ করেও কটাক্ষ করেছেন কবীর সুমন। তাঁর বিদ্রূপ, ‘একে বলে রাজনীতি। এই না হলে রাজনীতি। নতুন দল খুললেও এদের পরিবেশেই থাকতে হবে। গা গুলোয়!’

Related Articles

Back to top button