টাইমলাইনভারত

সরকারি সাহায্য পেয়েও খেতে দেয়না বাবা,১০ কিলোমিটার হেঁটে জেলাশাসকের দপ্তরে মেয়ে জানালো অভিযোগ

সরকার থেকে চাল ও টাকা পেয়েও তাকে ঠিকভাবে খেতে দেয় না বাবা। নিজের অধিকার বুঝে নিতে তাই ১১ বছরের মেয়ে (girl) ১০ কিলোমিটার হেঁটে পৌছাল জেলাশাসকের দপ্তরে। ঘটনাটি ঘটেছে পড়শি রাজ্য ওড়িশায় (odissa)।

ওড়িশায় কেন্দ্রপদ অঞ্চলের এই ১১ বছরের মেয়েটি বাবার অবহেলা ও অন্যায়ের বিরুদ্ধে গর্জে উঠল। জেলাশাসকের দপ্তরে যাওয়ার পথে অনেক বাধা ছিল, কিন্তু সমস্ত সাহসের সাথে পাহাড়ি পথটি পেরিয়ে সে কালেক্টরের অফিসে পৌঁছে যায়। কালেক্টর এর কাছে তার অভিযোগ জমা দেওয়ার ছবিটি সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হিয়ে গিয়েছে।

মেয়েটি অভিযোগ করে যে তার বাবা তাকে খারাপ খাবার দেয় অথচ সরকার তার জন্য বরাদ্দ যে রেশন ও টাকা দেয় তা তিনি আত্মসাৎ করেন। মেয়েটির অভিযোগের পরে, কেন্দ্রপদের ডিএম সমার্থ ভার্মা কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছিলেন যে রাজ্য থেকে প্রাপ্ত সুবিধা সরাসরি মেয়ের অ্যাকাউন্টে প্রেরণ করতে। শুধু তা-ই নয়, ডিএম বলেছিলেন যে এখন পর্যন্ত বাচ্চার বাবার কাছে যা কিছু চাল এবং টাকা দেওয়া হয়েছে, সে সবই তার কাছ থেকে নিয়ে মেয়েটিকে দেওয়া হবে।

জানা গেছে, শিশুটি একটি সরকারি স্কুলে পড়াশোনা করে। করোনা লকডাউনের কারণে যখন শিশুদের মিড ডে মিল বন্ধ হয়ে যায়, তখন রাজ্য সরকার তাদের পিতামাতার অ্যাকাউন্টে প্রতিদিন আট টাকা প্রেরণ শুরু করে। এর কারণ ছিল কিছু সন্তানের অনুপস্থিতি। একই সময়ে, প্রতিটি শিশুকে প্রতিদিন ১৫০ গ্রাম চাল দেওয়ার ব্যবস্থা শুরু করা হয়েছিল।

মেয়েটির মতে, তার মা প্রায় ২ বছর আগে মারা গিয়েছিলেন, তার পর তার বাবা দ্বিতীয় বিয়ে করেন এবং এখন সএ তার মামার সাথে থাকেন। মেয়েটি আরও জানায় যে তার একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট রয়েছে তবে এটি সত্ত্বেও, সে যে পরিমাণ সুবিধা পাবে তার বাবার অ্যাকাউন্টে যায়। তার বাবাও সরকার থেকে চাল পান।

Back to top button