মাংস-ভাত থেকে তরকা, ডিম কষা আরও কত কি! DYFI-র ব্রিগেড সভার মেনু শুনলে জিভে জল আসবে

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ লোকসভা নির্বাচনের (Loksabha Election) আগে রবিবার ব্রিগেডে (Kolkata Brigade) শক্তি প্রদর্শন করল সিপিএম এর যুব সংগঠন। দীর্ঘ ১৫ বছর পর ডিওয়াইএফআইয়ের (DYFI) ডাকে ব্রিগেড সমাবেশ। ২৪ এর লোকসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে আজ যুব সংগঠনের ব্যানারে সিপিএমের ব্রিগেডে ঢল নেমেছিল বাম সমর্থকদের। এককথায় জনজোয়ার। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে জড়ো হয়েছিলেন বাম (CPM) কর্মী-সমর্থকেরা। তৃণমূলের একুশে জুলাইয়ের সমাবেশে সকলের নজরে থাকতে ‘সিগনেচার ডিশ’ ডিম-ভাত। তবে বামেদের জন্য খাবারের আয়োজন ছিল একেবারেই ভিন্ন।

   

২১ জুলাই, তৃণমূলের শহীদ দিবস (TMC Shahid Diwas) অনুষ্ঠানে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছুটে আসেন তৃণমূল কর্মী-সমর্থকেরা। সমস্ত জোড়াফুল কর্মী-সমর্থকদের জন্য হয় রান্না-বান্নার আয়োজন। সব শিবিরেই খাবারের মেনুতে অবশ্যই থাকে ঝুরঝুরে সাদা ভাত, ডিম। বিরোধীদের কথায় ‘ডিম্ভাত’। ২১ জুলাই তৃণমূলের সমাবেশে ঐতিহ্যবাহী ডিম-ভাতের (Dim Bhat) যুগলবন্দী যে থাকবেই সেই বিষয়ে কারও সন্দেহের অবকাশ নেই। তবে ডিওয়াইএফআই-এর ব্রিগেডে হয়নি রান্নার আয়োজন।

জানা গিয়েছে, ব্রিগেডে আসা কর্মীদের জন্য খাবারের আয়োজন করেছিল এরিয়া কমিটিগুলি। এক এক জেলার তরফে রাখা হয়েছিল এক এক মেনু। সব জায়গাতেই ভিন্ন খাবার। কোনও এরিয়া কমিটি পাঠিয়েছিল মুরগির মাংস আর ভাত। কেউ রুটি-ডিম কষা। আবার কোনোটার তরফে রাখা হয়েছিল রুটি-আলুভাজা, রুটি-তরকাও ছিল লিস্টে।

আরও পড়ুন: ভারতকে অপমানের বদলা! মলদ্বীপ যাওয়ার সমস্ত বিমান বাতিল করল ট্রাভেল সংস্থা ইজমাইট্রিপ

ডিওয়াইএফআই সূত্রে খবর, এই এরিয়া কমিটিগুলি থেকে প্রায় ৩০ হাজারের বেশি খাবারের প্যাকেটে পাঠানো হয়েছে। আবার সমাবেশের আগের রাতে অনেকেই রান্নার জিনিস নিয়ে আসেন। সবকিছুর উর্দ্ধে উপস্থিত সকলের উৎসাহ-উদ্দীপনা ছিল তুঙ্গে। ৭ই জানুয়ারি সিপিএম এর যুব সংগঠনের সমাবেশ থেকে ঝাঁঝালো বক্তৃতা রাখেন ডিওয়াইএফআইয়ের রাজ‌্য সম্পাদক মীনাক্ষী মুখোপাধ‌্যায় (Minakshi Mukherjee)।

Kolkata Brigade DYFI menu,Kolkata Brigade,DYFI,কলকাতা ব্রিগেড,সিপিএম,ডিওয়াইএফআই,CPM,Bangla,Bengali,Bengali News,Bangla Khobor,Bengali Khobor,Minakshi Mukherjee

খাদ্য, শিক্ষা, চাকরি, স্বাস্থ্যের জন্য ইনসাফের দাবিতে DYFI-এর সমাবেশে উঠে এল চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলন থেকে, মাঠ-ময়দান দখলের ইস্যু৷ গোটা সমাবেশ জুড়ে মঞ্চের মূল আকর্ষণ ছিল যুব নেত্রীর বক্তৃত। ৫০ দিন আগে কোচবিহার থেকে শুরু হয়েছিল ইনসাফ যাত্রা। পঞ্চাশ দিন শেষে গতকাল ব্রিগেডে শক্তি প্রদর্শন করল সিপিএম এর যুব সংগঠন। ঢল নেমেছিল বাম সমর্থকদের। লোকসভা ভোটের আগে ব্রিগেডের চিত্র, জনজোয়ার দেখে নিঃসন্দেহে উচ্ছ্বসিত আলিমুদ্দিন।