ভোটের মাঝেই বিরাট উপহার! ফের দলে ‘কামব্যাক’ কুণাল ঘোষের

   

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ অবশেষে গলল বরফ। লোকসভা ভোটের আবহেই গিয়েছে মুখপাত্রের পদ। সম্প্রতি তৃণমূলের (Trinamool Congress) রাজ্য সাধারণ সম্পাদকের পদ কেড়ে নেওয়া হয় কুণালের (Kunal Ghosh) থেকে। একই সঙ্গে তারকা প্রচারকের তালিকা থেকেও নাম তুলে নেওয়া হয়। যা নিয়ে যথেষ্ট জলঘোলা হচ্ছিল। তবে এবার বিতর্কে রাশ টেনে কুণালকে তারকা প্রচারকের তালিকায় জুড়লো দল।

এর আগে পঞ্চম এবং ষষ্ঠ দফায় তারকা প্রচারকের মধ্যে থেকে বাদ পড়েছিলেন তৃণমূল নেতা কুণাল ঘোষ। তবে এবার ফিরিয়ে আনা হল তাকে। আগামী ১ জুন রাজ্যে সপ্তম দফার ভোট হবে। এদিন ওই দফার তারকা প্রচারকের মোট ৪০ জনের একটি তালিকা প্রকাশ করেছে তৃণমূল। তাতেই নাম রাখা হয়েছে কুণাল ঘোষের।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে উত্তর কলকাতার ৩৮ নম্বর ওয়ার্ডে একটি ক্লাবের রক্তদান শিবিরের আয়োজন করা হয়। সেখানে অথিতি হিসেবে আমন্ত্রিত ছিলেন উত্তর কলকাতার বিজেপি প্রার্থী প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক তাপস রায় এবং কুণাল দু’জনেই। সেই সূত্রেই এক মঞ্চ ভাগ করে দেন তৃণমূল-বিজেপির দুই নেতা। মঞ্চেই বসে তাপস রায়, তার উপস্থিতিতেই কুণাল সেখানে বক্তৃতা দেন। প্রশংসায় ভরিয়ে দেন বিজেপি প্রার্থীকে। মঞ্চে দাঁড়িয়েই খুল্লামখুল্লা মনের কথা বলে দেন কুণাল। এরপরই দলের কোপ গিয়ে পড়ে কুণালের ওপর।

তাপসের প্রশংসা করার পর তড়িঘড়ি কুণালকে সরানো হয় দলের রাজ্য সম্পাদকের পদ থেকে। পঞ্চম দফার তারকা প্রচারকের তালিকাতেও কুণালের নাম ছিল না। এই সমস্ত ঘটনারম নিয়ে হতাশা চেপে রাখতে পারেননি কুণাল। দলের প্রতি ক্ষোভ উগরে দেন প্রকাশ্যেই। সংবাদমাধ্যমের সামনেই কেঁদে ভাসান কুণাল।

Trinamool Congress leader Kunal Ghosh Bratya Basu

আরও পড়ুন: আগামী দু’ঘণ্টায় ঝড়! বজ্রপাত সহ ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি দক্ষিণবঙ্গের ৬ জেলায়, সতর্কতা জারি: আবহাওয়ার খবর

এরপর অবশ্য শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর উপস্থিতিতে ডেরেক ও’ব্রায়েনের সঙ্গে বৈঠক করেন কুণাল। তারপর থেকেই ধারণা করা হচ্ছিল, ঝামেলার অবসান হয়েছে। তারপর বেশ কয়েকদিন কেটে গিয়ে এবার ফের দলের তারকা প্রচারকের তালিকায় জ্বলজ্বল করছে কুণালের নাম। এদিন তালিকায় নাম ফেরা নিয়ে কুণাল বলেন, ”আমি দলের সৈনিক। দল যখন যেখানে যে কাজ দেবে, আমি সেই কাজ করতে সবসময় প্রস্তুত।”

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর