‘ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে…’, ED, CBI-কে ট্যাগ! এবার তৃণমূল সাংসদ সুদীপের বিরুদ্ধে তদন্তের দাবি কুণালের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ বৃহস্পতিবার রাত থেকে একের পর এক তোপ দাগছেন কুণাল ঘোষ (Kunal Ghosh)! প্রথমে নাম না করেই দলের এক নেতাকে ‘অযোগ্য’, ‘গ্রুপবাজ’, ‘স্বার্থপর’ বলে আক্রমণ করেন তিনি। এরপর শুক্রবার তৃণমূল কংগ্রেসের (TMC) রাজ্য সাধারণ সম্পাদক এবং মুখপাত্র পদ থেকে সরে দাঁড়িয়ে সরাসরি সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করেন। শনিবার সকালে আরও এক ধাপ এগিয়ে ইডি, সিবিআইকে ট্যাগ করে সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Sudip Banerjee) ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের তদন্তের দাবি জানালেন।

   

তৃণমূলের (Trinamool Congress) দু’টি পদে ইস্তফা দেওয়ার পরেই সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করেন কুণাল। তৃণমূল সাংসদের বিরুদ্ধে বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ রাখার মতো গুরুতর অভিযোগ আনেন তিনি। এবার সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নিয়ে তদন্তের দাবি জানালেন তৃণমূলের সদ্য প্রাক্তন রাজ্য সাধারণ সম্পাদক।

ইডির (ED) ডিরেক্টর এবং সিবিআইয়ের (CBI) সদর দফতরকে ট্যাগ করে আজ সকালে নিজের এক্স হ্যান্ডেলে একটি পোস্ট করেন কুণাল ঘোষ। তৃণমূল নেতা লিখেছেন, সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট (Bank Account) এবং তাঁর তরফ থেকে ভুবনেশ্বর অ্যাপোলোকে দেওয়া টাকা নিয়ে তদন্ত হওয়া উচিত।

কুণাল লেখেন, ‘তিনি যখন হেফাজতে ছিলেন সেই সময় তাঁকে মোটা অঙ্কের টাকা দেওয়া হয়েছে কিনা অথবা তাঁর হয়ে হাসপাতালকে টাকা দেওয়া হয়েছে কিনা তা নিয়ে যথাযথ তদন্ত হওয়া উচিত। এটা সত্যি হলে, এর সঙ্গে কয়লা-কেলেঙ্কারির যোগসূত্র থাকতে পারে। এই প্রসঙ্গে আরও তদন্তের স্বার্থে সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করা উচিত’।

sudip banerjee kunal ghosh

আরও পড়ুনঃ ভয়ঙ্কর বিস্ফোরণে গুরুতর আহত! মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন তৃণমূল নেতা শাহজাহান

এখানেই থামেননি তৃণমূল নেতা। এক্স হ্যান্ডেলে তাঁর হুঁশিয়ারি, ‘এজেন্সি যদি এটা এড়িয়ে যেতে চায়, তাহলে এই বিষয়ে তদন্ত চেয়ে আমি নিম্ন আদালতের দ্বারস্থ হব’। লোকসভা ভোটের আগে আচমকাই তৃণমূলের দু’টি পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করেন কুণাল ঘোষ। তিনি বলেন, ‘বিজেপিটা তো সুদীপ ব্যানার্জি চালান। সুদীপবাবুর একটু অসুবিধা হচ্ছে যাঁকে দেখতে পারতেন না সে কাউন্সিলর হয়ে গিয়েছে। সে বিজেপিতে জয়েন করেছে বলে একটু অসুবিধা হচ্ছে’।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর