টলিউডে ফ্লপ! ‘রাজনীতির ময়দানে আক্ষেপ মিটিয়ে নিচ্ছে’, হিরণকে চাঁচাছোলা আক্রমণ দেবের!

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ চব্বিশের লোকসভা ভোটে (Lok Sabha Election) এমন বেশ কিছু কেন্দ্র আছে যার দিকে নজর থাকবে রাজ্যবাসীর। এমনই একটি আসন হল ঘাটাল। হাইভোল্টেজ এই কেন্দ্রে মুখোমুখি হচ্ছেন টলিপাড়ার দুই নায়ক। গত দু’বারের জয়ী সাংসদ দীপক অধিকারী অরগে দেবকে (Dev) এবারও ঘাটাল থেকে দাঁড় করিয়েছে তৃণমূল। অপরদিকে বিজেপির (BJP) বাজি হিরণ চট্টোপাধ্যায় (Hiran Chatterjee)।

   

ঘাটাল কেন্দ্র (Ghatal Constituency) থেকে টিকিট পাওয়ার পর প্রতিপক্ষ দেবকে একাধিকবার নিশানা করেছেন হিরণ। এবার পাল্টা দিলেন তৃণমূল (TMC) প্রার্থী। বৃহস্পতিবার এক সাংবাদিক বৈঠকে হিরণের ক্রমাগত আক্রমণ নিয়ে মুখ খোলেন ঘাটালেন সাংসদ। দেব বলেন, এত নীচে নেমে নির্বাচনে জয়ী হওয়া যায় না।

তৃণমূল নেতার মুখে একাধিকবার ‘সৌজন্যতার রাজনীতি’র কথা শোনা গিয়েছে। তবে তাঁর সৌজন্যতাকে যেন দুর্বলতা না ভাবা হয়, এদিন কার্যত হুঁশিয়ারি দেন দেব। জোড়াফুল প্রার্থী হলেন, ‘হিরণ ক্রমাগত যেভাবে নিশানা করছে তাতে ঘাটালে কখনও জিততে পারবে না। এত নীচে নেমে কখনও ভোটে জেতা যায় না। এখানে যদি জয়ী হতে হয় তাহলে ভালোবাসা দিয়েই হতে হবে’।

আরও পড়ুনঃ ভোট প্রচারে বেরিয়ে তুমুল ক্ষোভের মুখে TMC প্রার্থী সায়নী ঘোষ! তারপর যা হল….

এখানেই না থেমে দেব বলেন, ‘মানুষ জেতার জন্য কত নীচে নামতে পারে! হিরণের কোথাও একটা সমস্যা রয়েছে। ও হয়তো আমার থেকে একটু সিনিয়র, তবে খুব সম্ভবত আমরা দু’জন একসঙ্গেই টলিউডে কেরিয়ার শুরু করেছিলাম। তবে এখন আমি একটা জায়গায় পৌঁছতে পারলেও ও সেটা পারেনি। এখন হয়তো সেই আক্ষেপটাই মিটিয়ে নিচ্ছে’।

প্রসঙ্গত, দেব এবং হিরণ দু’জনেই টলিপাড়ার পরিচিত মুখ। তবে দীর্ঘদিন সিনেদুনিয়ায় দেখা নেই হিরণের। অন্যদিকে একের পর এক সিনেমা করে যাচ্ছেন দেব। এখন অবশ্য ছবির কাজ বন্ধ রেখে নির্বাচনী প্রচারে মন দিয়েছেন অভিনেতা। ঘাটালে ঘুরে ঘুরে প্রচার করছেন তৃণমূল প্রার্থী।

dev hiran chatterjee

যদিও এবারের ভোটে দাঁড়ানোর দেবের খুব একটা দাঁড়ানোর ইচ্ছা ছিল না বলে খবর। তৃণমূল নেতা নিজেও জানিয়েছেন, নির্বাচনে না দাঁড়ানোর কথা ভাবনাচিন্তা করছিলেন তিনি। তবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্যই ফের ভোট ময়দানে নেমেছেন। ঘাটাল মাস্টারপ্ল্যানকে পাখির চোখ করে ফের সাংসদ হওয়ার লড়াইতে নাম লিখিয়েছেন দেব।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর