টাইমলাইনভারতরাজনীতি

দলীয় মহিলা সদস্যদের সঙ্গে ৪ বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক, বিয়েতে নারাজ কংগ্রেস নেতা! অভিযোগ নির্যাতিতার

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ মধ্যপ্রদেশের বুরহানপুর জেলায় কংগ্রেস (congress) নেতা মোশতাক হুসেনের (mushtaq hussain) বিরুদ্ধে দলেরই এক মহিলা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে ওই কংগ্রেস নেতার বিরুদ্ধে। অত্যাচারিত মহিলার অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ কংগ্রেস নেতা মোশতাক হুসেনকে গ্রেফতার করে।

ঘটনার বিবরণে ওই মহিলা কংগ্রেস নেত্রী জানিয়েছেন, ‘আমাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে কংগ্রেস নেতা মোশতাক হুসেন আমার সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। গত ৪ বছর ধরে শারীরিক অত্যাচারও করেছে। মোশতাক হুসেনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক থাকায় আমি তালাক পেতেও সক্ষম হই। কিন্তু এখন যখন আমি মোশতাক হুসেনকে নিকাহের কথা বলছি, তখন যে আমাকে হত্যার হুমকি দিচ্ছে। আমাদের এই সম্পর্কের কথা কাউকে জানিয়ে দিলে হত্যার ভয় দেখাচ্ছে’।

ওই কংগ্রেস নেত্রী আরও জানান, ‘মোশতাক হুসেনের বাড়ির অনেক মহিলা এই ঘটনার বিষয়ে আমাকে নানারকম হুমকি দিতে থাকে। যদি মোশতাক হুসেনের বিরুদ্ধে কোনরকম কড়া পদক্ষেপ না নেওয়া হয়, তাহলে আমি এখানেই সিসিটিভি ক্যামেরার সামনে আত্মহত্যা করব’।

পূর্বে তিনি এই ঘটনার বিষয়ে জেলা সভাপতি সহ রাজ্যের আরও অনেক বিশিষ্ট ব্যক্তিদের জানালেও, ওই মহিলার কথায় কেউ প্রথমে পাত্তা দেয়নি, তাঁকে সম্পূর্ণভাবে উপেক্ষা করা হয়। পরবর্তীতে ন্যায় বিচার পেতে বুরহানপুরের গণপতি নাকা থানায় নিজের অভিযোগ জানায়। আবার রাজ্য কংগ্রেস কমিটি মোশতাক হুসেনকে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ারও সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলেও জানা গিয়েছে।

এই ঘটনা প্রসঙ্গে এসপি রাহুল কুমার লোধা জানিয়েছেন, অভিযুক্ত মোশতাক হুসেনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ ইতিমধ্যেই মামলার তদন্ত শুরু করেছে।

Back to top button