জনপ্রিয় এই অ্যাপের মাধ্যমে ভিডিও কল করেন? আপনার তথ্য বিক্রি হয়ে যায়নি তো

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ সারা বিশ্বের বহু দেশে করোনা ভাইরাসের কারনে চলছে লকডাউন। এই পরিস্থিতিতে বন্ধ স্কুল, কলেজ, অফিস, আদালত। যোগাযোগ রাখার একমাত্র উপায় সামাজিক মাধ্যম ও ভিডিও কনফারেন্সিং প্ল্যাটফর্ম। এই সময়ে ওয়েবএক্স, এমএস টিমস, গুগ্ল মিট, গো টু মিটিং এর মত ওয়েবএক্স, এমএস টিমস, গুগ্ল মিট, গো টু মিটিং এর মত ভিডিও কনফারেন্সিং প্ল্যাটফর্মকে পেছনে ফেলে জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছে গেছে জুম। কিন্তু এরই মধ্যে মারাত্মক অভিযোগ উঠল এই ভিডিও কনফারেন্সিং প্ল্যাটফর্মএর বিরুদ্ধে।

   

সাইবার সুরক্ষা সংস্থা সাইবেলের তরফে সম্প্রতি দাবি করা হয়েছে, মাত্র ১৫ পয়সা প্রতি অ্যাকাউন্ট দরে জুমের থেকে তার ৫.৩০ লক্ষ গ্রাহকের ব্যক্তিগত ই-মেল অ্যাকাউন্ট ও পাসওয়ার্ড, পার্সোনাল মিটিং এর ইউআরএল এবং হোস্ট-কি ডার্ক ওয়েবের মাধ্যমে কিনেছে তারা। পাশাপাশি এই তথ্য তারা বিক্রি করছে বিভিন্ন দেশের হ্যাকারদের কাছে। যদিও জুম কতৃপক্ষের তরফ থেকে গোটা ঘটনা অস্বীকার করা হয়েছে। তবুও এই ঘটনায় রীতিমতো উদ্বিগ্ন গোটা পৃথিবী।

এই অভিযোগ এর ভিত্তিতে স্পেসএক্স, গুগল, নাসার মতো বিশ্বখ্যাত প্রতিষ্ঠানগুলি কর্মীদের জুম ব্যাবহারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। নিজেদের সাইবার সুরক্ষাকে জোরদার করতে জুম ফেসবুকের প্রাক্তন সাইবার সুরক্ষা প্রধানকে নিয়োগ করলেও তাতে কোনো সুরাহা হয় নি।

৩ মাস আগে গড়ে যেখানে রোজ ১ কোটি গ্রাহক এই প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করতেন, সেখানে বর্তমানে তা বেড়ে দৈনিক ২০ কোটিতে দাঁড়িয়েছে। যদিও এই ঘটনার কারনে জুমের জনপ্রিয়তায় ভাটা পড়বে বলেই মনে করছে সাইবার বিশেষজ্ঞ মহল।

 

সম্পর্কিত খবর