আজ ভবানীপুরে ‘বিরাট’ আয়োজন তৃণমূলের! থাকবেন খোদ মমতা, লোকসভার আগে বিগ প্ল্যান

   

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ভবানীপুরের (Bhabanipur Assembly) বিধায়ক তিনি। সোমবার সেই ভবানীপুরেই বিজয়া সম্মিলনীতে যোগ দেবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। এদিন সন্ধ্যা ছ’টায় আলিপুরের মুক্তমঞ্চ উত্তীর্ণতে বিজয়া সম্মিলনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে ভবানীপুর বিধানসভা তৃণমূল নেতৃত্ব। সেখানেই যোগ দেবেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

তবে বিজয়ার শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি রাজনৈতিক দিকে থেকেও এই কর্মী সম্মেলন খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। গত বছরও উত্তীর্ণ প্রেক্ষাগৃহে এই একই ধরনের কর্মী সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। নিজের বিধানসভা কেন্দ্র ভবানীপুরে খুব একটা রাজনৈতিক কর্মসূচিতে দেখা যায় না দলনেত্রীকে। তাই লোকসভা ভোটের আগে তৃণমূলের এই কর্মসূচী দল ও কর্মীদের কাছে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

সোমবারের এই বিজয়া সম্মিলনী আয়োজকের দায়িত্বে রয়েছেন রাজ্যসভা সাংসদ তথা তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি এবং দক্ষিণ কলকাতা তৃণমূলের সভাপতি তথা রাসবিহারীর বিধায়ক দেবাশিস কুমার। দল তরফেই এই দুজনার উপর মূল দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি গোটা বিষয়টি নজরদারি করবেন পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

তৃণমূলের বিজয়া সম্মিলনীর অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন ভবানীপুর বিধানসভার অন্তর্গত কলকাতা পুরসভার ৮ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এবং ব্লক সভাপতিরা। এছাড়া মাননীয়ার উপস্থিতি সম্পন্ন এই কর্মসূচিতে যোগ দেবেন ছোট থেকে বড় দলের স্থানীয় নেতা কর্মীরা। গৃহবন্দি দশা কাটানোর ঠিক পরই নিজের কেন্দ্র থেকে দলের উদ্দেশে কী বার্তা দেন মমতা, সেই দিকেই নজর থাকবে সকলের।

mamata4

আরও পড়ুন: বালুর সঙ্গে ঘনিষ্ঠতাই কাল হল! এবার ED-র স্ক্যানারে এক ডজন ব্যবসায়ী ও কাউন্সিলর, তৈরী তালিকা

সম্প্রতি ইডির হাতে গ্রেফতার হয়েছেন রাজ্যের বনমন্ত্রী তথা প্রাক্তন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। সেই নিয়ে রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজ্যে। খোদ মুখ্যমন্ত্রী নবান্নের বৈঠক থেকে এই বিষয়ে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় এজেন্সি ও বিজেপির উপর। বর্তমানে মন্ত্রীমশাই জেলে। আজও মুখ্যমন্ত্রীর মুখে এজেন্সি রাজ্যের প্রসঙ্গ উঠতে পারে। পাশাপাশি লোকসভার আগে বিজয়া সম্মিলনীর এই অনুষ্ঠান থেকে কেন্দ্রীয় বঞ্চনার বিরুদ্ধেও মুখ্যমন্ত্রী তোপ দাগতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর