টাইমলাইনবিনোদন

রাখির দিনে ভাইরাল ‘চা কাকু’র কাছে রাখি ও মিষ্টি পাঠালেন ‘বোন’ মিমি চক্রবর্তী

বাংলাহান্ট ডেস্ক: লকডাউনে ভাইরাল ‘চা কাকু’র (cha kaku) কথা সকলের মনে আছে নিশ্চয়ই। জনতা কার্ফুর দিন পাড়ার চায়ের দোকানে চা খেতে বেরিয়ে একটি ভিডিওর দৌলতে ভাইরাল তথা ‘মিম মেটিরিয়াল’এ পরিণত হন চা কাকু ওরফে মৃদুল বাবু। পরে তাঁর আসল কাহিনি জানতে পেরে যাদবপুরের বাসিন্দা মৃদুল বাবুর দিকে সাহায‍্যের হাত বাড়িতে দেন যাদবপুরের তৃণমূল সাংসদ মিমি চক্রবর্তী (mimi chakraborty)।
চা কাকুর সারা জীবনের দায়িত্ব গ্রহণ করেছিলেন সাংসদ অভিনেত্রী। কিন্তু তাতেই কিন্তু দায়িত্ব সেরে ফেলেননি মিমি। আজ রাখি বন্ধনের বিশেষ দিনে মিমির তরফে চা কাকুর বাড়িতে পৌঁছে গিয়েছে এক বিশেষ উপহার। মৃদুল বাবুর জন‍্য রাখি ও মিষ্টি পাঠিয়েছেন মিমি। রাখির এই শুভ দিনে মৃদুল বাবুর জন‍্য এটাই উপহার ‘বোন’ মিমির।


সাংসদ অভিনেত্রীর কাছ থেকে এমন উপহার পাবেন তা আশাই করেননি মৃদুল বাবু। এত ব‍্যস্ত রুটিনের মধ‍্যেও যে মৃদুল বাবুকে মনে রেখেছেন মিমি তা ভাবতেও পারেননি তিনি। স্বাভাবিক ভাবেই খুশি উপচে পড়ছে তাঁর। তবে শুধু মৃদুল বাবু নন, যাদবপুরের অনেক বাড়িতেই পৌঁছে গিয়েছে মিমির তরফে বিশেষ উপহার।
এই প্রসঙ্গে অভিনেত্রী বলেন, “আমার কাছে রাখি মানে শুধু সৌভ্রাতৃত্ব প্রকাশের উৎসব নয়। এর অর্থ আন্তরিকতা ও ভালবাসা ছড়িয়ে দেওয়া। একে অপরকে জানানো যে আমরা একে অপরের সঙ্গে আছি, একে অপরের কেয়ার করছি। রাখি মানে জাতি ধর্ম নির্বিশেষে সকলের কেয়ার করা ও ভালবাসা ছড়িয়ে দেওয়া। আমি শুধু ওনাকে না, আরও অনেককেই উপহার পাঠিয়েছি।”
প্রসঙ্গত, দৈনিক মজুরির শ্রমিক মৃদুল বাবুর লকডাউন চালু হওয়ায় বন্ধ হয়ে যায় রোজগারের রাস্তাও। তাঁর প্রবল অর্থকষ্টের কথা জানতে পেরেই সাহায‍্যের হাত বাড়িয়ে দেন মিমি। নিত‍্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী পাঠানো ছাড়াও ভিডিও কলে মৃদুল বাবুর সঙ্গে কথাও বলেন তিনি। সেই সঙ্গে চা প্রেমী মৃদুল বাবুকে একটি চায়ের প‍্যাকেটও উপহার দেন।

Back to top button
Close