আন্তর্জাতিকটাইমলাইন

১ কোটি ৭০ লাখ মিঙ্ক মেরে ফেলার সিদ্ধান্ত নিল ডেনমার্ক সরকার

ভোঁদর জাতীয় এক মিষ্টি প্রাণী মিঙ্ক (mink)। এর দেহের পশম অত্যন্ত উৎকৃষ্ট। পশমের কারনেই বিশ্বের বিভিন্ন দেশে পালন করা হয় এই প্রাণীটিকে। কিন্তু তার দেহেই পাওয়া যাচ্ছে করোনার এক মিউট্যান্টের৷ তাই করোনার হাত থেকে অধিবাসীদের রেহাই দিতে ১ কোটি ৭০ লাখ মিঙ্ক হত্যার সিদ্ধান্ত নিল  ইউরোপের  ডেনমার্ক সরকার (Denmark)।

প্রতীকি ছবি : মিঙ্ক (mink)

ডেনমার্কেও উৎকৃষ্ট পশমের জন্য এই মিষ্টি প্রাণীটির চাষ হয়। প্রাকৃতিক ভাবেও সেখানে বসবাস করে অনেক মিঙ্ক। ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, এই প্রাণীর দেহে করোনার এক রূপান্তরিত রূপ পাওয়া গিয়েছে। ইতিমধ্যেই তা মানবদেহে সংক্রমণেরও হদিস পাওয়া গেছে। তাই দেশ সহ বিশ্বের নাগরিকদের স্বার্থে এই সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে সরকারকে।

পুলিশ ও হোমগার্ডের পাশাপাশি সেনাবাহিনীও এই নিধন যজ্ঞে সামিল হবে। ইতিমধ্যেই মিঙ্ক খামারে কর্মরত ১২ জনের দেহে করোনার অস্তিত্ব পাওয়া গিয়েছে। এর আগে নেদারল্যান্ডসেও কয়েক লাখ মিঙ্ক মেরে ফেলা হয় করোনার কারনে। বিষাক্ত গ্যাস দিয়ে মেরে ফেলা হয়েছিল তাদের। স্পেনেও করোনা পজিটিভ হওয়ায় কয়েক লাখ মিঙ্ক মারা হয়েছিল।

জানিয়ে রাখি, ইতিমধ্যেই করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে। জার্মানি ইংল্যান্ড সহ ইউরোপের  বেশ কয়েকটি দেশে লকডাউনও ঘোষনা করা হয়েছে। এই তালিকায় আছে ডেনমার্কও। ডেনমার্কেও নতুন করে করোনা সংক্রমণের খবর পাওয়া গেছে। উত্তর ডেনমার্কের বেশ কিছু অঞ্চলে নতুন করে লকডাউন ঘোষনা হতে পারে এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন সে দেশের প্রধানমন্ত্রী মেট ফ্রেডেরিকসেন।

Back to top button