‘বেশ করেছি, আবার করবো’, বিশ্বকাপ ট্রফিতে পা রাখা প্রসঙ্গে শামিকে পাল্টা দিলেন মার্শ

   

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্কঃ প্রায় দুই সপ্তাহ আগে বিশ্বকাপ (2023 ODI World Cup) ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল ভারত এবং অস্ট্রেলিয়া (India vs Australia)। ভারতের মাটিতেই ভারতীয় দলকে (Indian Cricket Team) হারিয়ে বিশ্বকাপের খেতাব (World Cup Trophy) রেকর্ড ষষ্ঠ বারের জন্য নিজেদের দখলে নিয়ে নিয়েছিল অজিরা। মহম্মদ শামিরা (Mohammed Shami) গোটা টুর্নামেন্টে অসাধারণ ক্রিকেট খেললেও ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার বুদ্ধিদীপ্ত ক্রিকেটের কাছে হার মানতে বাধ্য হয়েছিলেন। কিন্তু তারপর ভারতের বিশ্বকাপ হারকে ছাপিয়ে যায় অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের মিচেল মার্শকে (Mitchell Marsh) নিয়ে ঘটা একটি ঘটনা।

পায়ের তলায় বিশ্বকাপ:

বিশ্বকাপ ট্রফি দিয়ে মাঠের ওপর উদযাপন করার পর সেটি ড্রেসিংরুমে নিয়ে যান অজি ক্রিকেটাররা। সেখানেও চলে ফটো সেশন। সেই সময় মিছিল মার্চের একটি ফটো সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়, যেখানে দেখা যায় যে বিশ্বজয়ী অলরাউন্ডার বিশ্বকাপ ট্রফির ওপর দুই পা তুলে আলাপ করে এলিয়ে বসে রয়েছেন সোফায়।

সমালোচনার ঝড়:

একেই বিশ্বকাপ ফাইনালে হারের যন্ত্রণা, তারপর ট্রফি দিয়ে অস্ট্রেলিয়ার ওরকম বেপরোয়া মনোভাব অনেক ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীর অনুভূতিতে আঘাত দেয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেক ভারতীয় সমর্থকই বলতে থাকেন যে ট্রফিটা যদি ভারতের হাতে উঠতো তাহলে তার জায়গা হতো মাথার ওপর, পায়ের তলায় নয়।

marsh wc

আরও পড়ুন: ২২ মাসে বদলে গেল ভাগ্য! এই তারকাকে ফের একবার জিরো থেকে হিরো হওয়ার সুযোগ দিলো BCCI

শামির বক্তব্য:

একটি সাক্ষাৎকার এই বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে এই নিয়ে মন্তব্য করেছিলেন ভারতের তারকা পেসার মহম্মদ শামিও। প্রথম ভারতীয় ক্রিকেটার হিসেবে বিশ্বকাপে ৫০ উইকেট নেওয়া এবং বিশ্বকাপের ইতিহাসের দ্রুততম ৫০ উইকেটের মালিক হওয়া এই ভারতীয় পেশার বলেছেন তার কাছে যদি বিশ্বকাপ ট্রফিটা আসতো তাহলে হয়তো তিনি ওরকম করতেন না এবং মার্শের ওই ছবি দেখে তার খারাপ লেগেছে।

আরও পড়ুন: শামিকে নিয়ে চরম খারাপ খবর শোনালো BCCI! মাথায় হাত রোহিত শর্মার

মার্শের পাল্টা জবাব:

ওই ঘটনার ১১ দিন পর অবশেষে এই বিষয় নিয়ে মুখ খুলেছেন অস্ট্রেলিয়ান অলরাউন্ডার। নিজের বক্তব্যে মার্শ বলেছেন, “আমি কোনওভাবে বিশ্বকাপ ট্রফির অপমান করিনি। বিষয়টার পেছনে সেই রকম কোনও ভাবনাচিন্তেই কাজ করেনি। আমি নিজেকে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে দূরে রাখি কিন্তু অন্যদের কাছে শুনতে পেয়েছিলাম যে বিষয়টি নিয়ে চর্চা চলছে। তবে আমি যদি সুযোগ পাই আবার তাহলে ওই রকম ভাবে ছবি তুলতে দ্বিধা করবো না।” তার এই মন্তব্য নিয়ে দুই ভাগে বিভক্ত সোশ্যাল মিডিয়া। একদল তাকে আরও তীব্রভাবে আক্রমণ করেছেন এই বক্তব্যের পর। আরেক দল তার পাশে দাঁড়িয়ে মন্তব্য করছেন যে তারা বিশ্বজয়ী এবং কোনওরকম অনুভূতি নিয়ে বাঁচে না। ফলে এইরকম আকাশছোঁয়া সাফল্য তারা পেয়ে চলেছে।

 

Avatar
Reetabrata Deb

সম্পর্কিত খবর