টাইমলাইনভাইরাল

মমি থেকে ‘জেগে’ উঠে শেষ ইচ্ছে জানালেন তিন হাজার বছর আগে মৃত পুরোহিত!

মমি (mommy) থেকে জেগে উঠে কথা বললেন তিন হাজার বছর আগে মারা যাওয়া পুরোহিত! না, দ্য মমি রিটার্নসের মতো কোনো হলিউডি সিনেমার গল্প নয়। বিজ্ঞানের দৌলতেই সম্ভব হয়েছে এই অত্যাশ্চর্য ঘটনা।

প্রাচীন পৃথিবীর সবচেয়ে অত্যাশ্চর্য সভ্যতা মিশর (egypt) । পিরামিড, হায়ারোগ্লিফিক্স থেকে মমি মিশরের সভ্যতা আমাদের অবাক করে দেয়৷

প্রাচীন মিশরের সূর্য ও বায়ুর দেবতা আমানের মন্দির ছিল থিবসের কারনাকে। সেই মন্দিরের পুরোহিত নেসিয়ামান মারা যান আজ থেকে প্রায় ৩ হাজার বছর আগে।

যথারীতি তার মৃতদেহকে মমি বানিয়ে রাখা হয়। এবার তিনিই জেগে উঠলেন বিজ্ঞানের দৌলতে, জানালেন নিজের শেষ ইচ্ছেও।

জানা যাচ্ছে, ১৮২৩ সালে মমিটা উদ্ধার করে ইংল্যান্ডের লিডস সিটি মিউজিয়ামে দর্শকদের দেখার ব্যবস্থা করা হয়। পাশাপাশি চলে মমিটি নিয়ে গবেষনাও। সিটি স্ক্যান করে বিজ্ঞানীরা জানতে পারেন এই মমির ভোকাল ট্র‍্যাকের নরম কোষগুলি অবিকৃত রয়েছে। সেই কোষ ও অত্যাধুনিক 3D প্রিন্টারের সাহায্যে তাকে দিয়ে কথা বলানো সম্ভব হয়েছে।

কি বললেন ঐ পুরোহিত? পুরোহিতের গলার যে স্বর রেকর্ড করা হয়েছে তা অত্যন্ত অস্পষ্ট। বিজ্ঞানীরা তার অর্থ এখনো উদ্ধার করতে পারেন নি৷ অবে তারা আশা করছেন অদূর ভবিষ্যতে এই শব্দের অর্থ নির্ণয় করতে পারলেই জানা যাবে তার জীবনের শেষ ইচ্ছে।

গত বুধবার সায়েন্টিফিক রিপোর্টস নামে এক জার্নালে প্রকাশিত গবেষণাটি ঘিরে ইতিমধ্যেই আগ্রহ তৈরি হয়েছে। বিজ্ঞানীরা বলছেন এই গবেষণা বিজ্ঞানের নতুন দিক খুলে দেবে।

 

 

Back to top button