‘পুরো দোতলা বাসের মতো লাগছে…’, গর্ভাবস্থায় অঙ্কুশকে জড়িয়ে উদ্দাম নাচ! কটাক্ষের শিকার শুভশ্রী

বাংলা হান্ট ডেস্ক : ইউভানের যে প্রমোশন হচ্ছে সে কথা নিজেই জানিয়েছিলেন রাজ-শুভশ্রী (Raj Chakraborty Subhashree Ganguly)। জানিয়েছিলেন, তাদের পুঁচকে ইউভান (Yuvan) এবার দাদা হতে চলেছে। তারপর থেকেই খুশির আমেজ ভক্তমহলে। তবুও মা হবেন বলে ঘরের কোণে ঢুকে বসে থাকতে দেখা যায়নি তাকে। কারণ অভিনেত্রীর কথায়, প্রেগন্যান্সি কোনও রোগ নয়, এটা জীবনের সুন্দর একটা মুহূর্ত।

যে কারণে তিনি যেমন প্রলয়ের সাকসেস পার্টিতেও কোমর দুলিয়েছেন তেমনই আবার ডান্স বাংলা ডান্সের শ্যুটিংও চুটিয়ে উপভোগ করেছেন। আবার দিন কয়েক আগেই, জন্মাষ্টমির দিন ছোট্ট ইউভানকে নিয়ে উৎসবে মেতে উঠেছিলেন। আর এইসব কোনোকিছুতেই তার প্রেগনেন্সিতে প্রভাব ফেলতে পারেনি। তবে সম্প্রতি ডান্স বাংলা ডান্স-র মঞ্চে যা করেছেন তাতে একটু আপত্তি জানিয়েছে ভক্তরা।

   

এইদিন ডিবিডি-র মঞ্চে শুভশ্রী পরেছিলেন স্লিভলেস শর্ট ফ্রকড্রেস, সাথে মানানসই হিল জুতো। ব্যাকগ্রাউন্ডে বেজে চলেছে ‘চুরাকে দিল মেরা…চুরাকে নিন্দ মেরা কাঁহা তু চলি’। আর গানের তালে তালে অঙ্কুশের সাথে কোমর দোলাচ্ছেন নায়িকা। অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় এরকম হিল পরে নাচ করা কতটা যুক্তিযুক্ত? প্রশ্ন তুলেছে নেটনাগরিকরা।

আরও পড়ুন : নুসরতের সঙ্গেই পড়েছে ডাক! এবার ED-র সমন নিয়ে মুখ খুললেন রূপরেখা, যাবেন হাজিরা দিতে?

যদিও শুভশ্রী দেখে শুনেই পা ফেলছিলেন, পাশাপাশি অঙ্কুশও বারবার তাকে সামলে নিচ্ছিলেন, তবুও কোথাও গিয়ে বিষয়টা একেবারেই পছন্দ হয়নি অনুরাগীদের। তাছাড়া শুভশ্রীর পোশাক নির্বাচন নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন নেটিজনদের একাংশ। কেউ তার ড্রেসটিকে দোতলা বাসের সাথে তুলনা করলেন তো কেউ আবার বলছেন ব্যাঙের ছাতা। একজন লিখেছেন, ‘বেবিবাম্প ঢাকার প্রচেষ্টায় এমন অদ্ভুত প্রচেষ্টা।’

 আরও পড়ুন : ‘জওয়ান’ ক্রেজে শামিল আনন্দ মাহিন্দ্রাও, শাহরুখকে ‘জাতীয় সম্পদ’ ঘোষণার দাবি শিল্পপতির

যদিও অনেকেই শুভশ্রীর এনার্জি দেখে আপ্লুত হয়ে গিয়েছে। এই অবস্থায় ছুটি না নিয়েও তিনি যে কাজ করছেন সেটাকেই কুর্নিশ জানিয়েছে অনেকেই। তবে নেটিজনরা যে তাই বলুক না কেন, শুভশ্রী যে এসবকে মোটেও পাত্তা দেননা সেটা তার কাজ দেখলেই বোঝা যায়। মাঝে একদিন একটা ভিডিও শেয়ার করেছিলেন যেখানে দেখা গিয়েছিল শাহরুখ খান বলছেন তিনি যখন বেশ কয়েকদিন তার সম্পর্কে কোনও খারাপ মন্তব্য শোনেন না, তখন ভয় পেয়ে যান। শুভশ্রী জানান, তার জীবনের গল্পটাও খানিকটা এরকমই।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর