ভারতে এই প্রথম! চালক ছাড়াই নিশ্চিন্তে চলবে Self-Driving Electric Scooter, নয়া নজির গড়ল Ola

বাংলা হান্ট ডেস্ক: বর্তমান সময়ে যুগের সাথে তাল মিলিয়ে ক্রমশ পরিবর্তিত হয়েছে সবকিছু। কয়েক বছর আগে পর্যন্ত, আমাদের দেশে (India) বৈদ্যুতিক যানবাহনের (Electric Vehicles) ব্যবহার তেমন চোখে পড়তো না। কিন্তু এখন হু হু করে বৃদ্ধি পাচ্ছে এহেন যানবাহনের ব্যবহার। মূলত, জ্বালানির দামের হাত থেকে বাঁচতে এবং পরিবেশ দূষণ হ্রাসের বিষয়টি মাথায় রেখেই EV-র প্রতি আকৃষ্ট হচ্ছেন সকলে। এমতাবস্থায়, চাহিদার ওপর ভর করে বাজারে আসছে নিত্যনতুন বৈদ্যুতিক যানবাহন। তবে, এবার কার্যত সবাইকে অবাক করে দিল Ola। শুধু তাই নয়, ভারতের বাজারে তারা তৈরি করল এক বিরাট নজির।

   

মূলত, এবার ওই সংস্থার তরফে প্রকাশ্যে আনা হয়েছে Self-Driving Electric Scooter। অর্থাৎ এই বৈদ্যুতিক স্কুটার চলতে সক্ষম চালক ছাড়াই। হ্যাঁ, প্রথমে বিষয়টি জেনে অবিশ্বাস্য মনে হলেও ইতিমধ্যেই Ola-র CEO ভাবিশ আগরওয়াল গত মঙ্গলবার নেটমাধ্যমে ওই Self-Driving Electric Scooter-এর একটি ভিডিও সামনে এনেছেন। যেটি প্রত্যক্ষ করে চমকে গিয়েছেন সকলেই।

এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি, গত সোমবার অর্থাৎ ১ এপ্রিল ভারতের প্রথম Self-Driving Electric Scooter-এর ঘোষণা করেছিল Ola। যেটির নাম দেওয়া হয়েছে “Ola Solo”। তবে, ওইদিন এহেন ঘোষণা সামনে আসায় অনেকেই অনুমান করেছিলেন যে, সেটা হয়তো ১ এপ্রিল তথা এপ্রিল ফুলের রসিকতা। কিন্তু, পরে ভাবিশ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ভাবিশ আগরওয়াল “X”-এ লিখেছেন, “শুধু এপ্রিল ফুলের রসিকতা নয়! আমরা গতকাল ‘Ola Solo’-র ঘোষণা করেছি। এটি ভাইরাল হয়ে যায় এবং অনেকে বিতর্ক করে যে এটি বাস্তব নাকি এপ্রিল ফুলের কৌতুক! তবে, ভিডিওটির উদ্দেশ্য সবাইকে হাসানোর থাকলেও, এর পেছনের প্রযুক্তিটি এমন একটি বিষয়, যেটিতে আমরা কাজ করছি এবং এর জন্য একটি প্রোটোটাইপ তৈরি করেছি। এটি প্রমাণ করে যে আমাদের ইঞ্জিনিয়ারিং দলগুলি কি ধরণের কাজ করতে সক্ষম।”

আরও পড়ুন: অজান্তেই দাদুর কেনা SBI-এর শেয়ারে ৩০ বছর পর মালামাল হলেন নাতি, ৫০০ টাকা পৌঁছে গেল….

তিনি আরও বলেন, “Ola Solo হল ভবিষ্যৎ গতিশীলতার একটি প্রমাণ এবং আমাদের ইঞ্জিনিয়ারিং টিমগুলি টু-হুইলারগুলিতে অটোনোমাস এবং সেল্ফ ব্যালেন্সিং বজায় রাখার প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করছে। যেগুলি আপনারা আমাদের ভবিষ্যতের প্রোডাক্টগুলিতে দেখতে পাবেন।” এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি যে, “Ola SOLO”-কে ট্রাফিক স্মার্ট, AI এনাবেল্ড এবং কমপ্লিটলি অটোনোমাস করে তোলা হয়েছে।

আরও পড়ুন: জঙ্গলে কেউ লাগিয়েছে আগুন! নেভানোর কাজে ছুটে এল স্কুলের পড়ুয়ারা, বাঁকুড়ায় তৎপর “সবুজ বাহিনী”

পাশাপাশি এই সংক্রান্ত প্রকাশ্যে আসা ভিডিওটিতে দেখা গিয়েছে, এই অত্যাধুনিক স্কুটার কোনো চালক ছাড়াই নিজে নিজেই সম্পূর্ণ ব্যালেন্সের মাধ্যমে চলাচল করেছে। এই প্রতিবেদনটি লেখার সময় পর্যন্ত ওই ভিডিওটি প্রত্যক্ষ করেছেন ৮ লক্ষ ৩০ হাজারেরও বেশি মানুষ। পাশাপাশি, ভিডিওটির পরিপ্রেক্ষিতে নিজেদের প্রতিক্রিয়াও জানিয়েছেন তাঁরা।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর