অনলাইনে দুই বন্ধুর ঝগড়া থেকে সাম্প্রদায়িক অশান্তি, ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি এলাকায়, মোতায়েন বিরাট পুলিসবাহিনী

বাংলা হান্ট ডেস্ক : ফের সাম্প্রদায়িক অশান্তিতে উত্তপ্ত উত্তরপ্রদেশ (Uttar Pradesh)। এবার ঘটনা বেরেলি জেলায়। ইনস্টাগ্রামে একটি পোস্ট শুরু হয় ধুন্ধুমার কাণ্ড। পোস্ট নিয়ে নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া দুই বন্ধুর মধ্যে শুরু ঝামেলা বাঁধে। পরে সেই ঝামেলা দুই সম্প্রদায়ের মধ্যে উত্তেজক পরিস্থিতির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। পরিস্থিতি এমন দাঁড়ায় যে পিলিভীত জেলা থেকে অতিরিক্ত বাহিনী ডাকতে হয়। এই মুহুর্তে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত বাহিনী।

   

স্থানীয় সূত্রে খবর, ঘটনাটি বেরেলির শিশগড় শহরের। এখানে একটি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে পাঠরত ১৪ বছর বয়সী দুই বন্ধু একটি ইনস্টাগ্রাম পোস্ট নিয়ে তর্ক-বিতর্কের মধ্যে জড়িয়ে পড়। তর্ক এতদূর গড়ায় যে একে অপরের ধর্ম নিয়েও অবমাননাকর মন্তব্য করা শুরু। তাদের ঝামেলা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। এর পরেই, একটি নির্দিষ্ট সম্প্রদায়ের ৪০ জনেরও বেশি লোক শীশগড় থানার বাইরে জড়ো হয়। রাস্তা আটকে তারা ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানাতে থাকে।

up 2

পুলিস তদন্ত শুরু। একটি ছেলের বিরুদ্ধে এফআইআর নথিভুক্ত করা হয়। এরপরই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে আটক করা হয়। এদিকে সংখ্যাগরিষ্ঠ সম্প্রদায়ের বেশ কয়েকজন অন্য এক স্কুল ছাত্রের বাড়িতে হামলা চালায়। খবর পেয়ে অতিরিক্ত এসপি (পল্লী) ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। শনিবার সকাল পর্যন্ত এলাকা ছিল চরম উত্তপ্ত।

আইজি বেরেলি রাকেশ সিং এবং বিভাগীয় কমিশনার সৌম্য আগরওয়াল ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাম পরিদর্শন করেন। এলাকার পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেন। আপৎকালীন অবস্থা নিয়ন্ত্রণে পিলিভীত থেকে অতিরিক্ত বাহিনী ডাকা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন : হিন্দু মেয়ের সঙ্গে প্রেম-বিয়ে! মুসলিম যুবকের বাবা-মা’কে পিটিয়ে হত্যা তরুণীর পরিবারের

এএসপি আগরওয়াল সংবাদমাধ্যমকে জানান, দুই শিশুর মধ্যে কথোপকথনের পর উত্তেজনার পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। দুই শিশুর বাড়িতে উভয় ধর্মের লোকজন হামলার চেষ্টা করলেও বড় ধরনের কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। কয়েকজন পুলিস সদস্যদের সঙ্গে দুর্ব্যবহারও করেন। গ্রামে পিএসি মোতায়েন করা হয়েছে এবং পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে।

সম্পর্কিত খবর