বিশ্বজুড়ে মুসলিমদের উপর অত্যাচারের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রসংঘে ভোটাভুটি! অংশ নিলনা ভারত

বাংলা হান্ট ডেস্ক : সম্প্রতি বাষ্ট্রসংঘে (United Nations) এক বিশেষ বিল নিয়ে আসা হয়। সেখানে সারাবিশ্বের মুসলিমদের ওপর ঘটে যাওয়া হিংসা এবং বিদ্বেষ এড়াতে বিশেষ প্রস্তাব আনা হয়। বাষ্ট্রসংঘের সাধারণ পরিষদে নিয়ে আসা বিলের মূল উদ্দেশ্য ইসলাম-বিদ্বেষের বিরোধিতা করা। এবং সেখানে এও বলা রয়েছে যে, রাষ্ট্রসংঘ যেন বিষয়টির ওপর গুরুত্ব দেয় এবং সেখানে বিশেষ দূতও নিয়োগ করে।

   

পড়শি দেশ পাকিস্তান (Pakistan) এই প্রস্তাব নিয়ে আসে। অবাক করার মতো বিষয় এই যে, প্রস্তাবে সমর্থন জোগায় চিন এবং রাশিয়া। রাষ্ট্রসংঘে আসা এই প্রস্তাবে মোট 115 টি দেশ ভোটাভুটিতে অংশগ্রহণ করে। তবে ভারত (India) এবং বেশ কয়েকটি দেশ এই প্রস্তাবে অসম্মত হয় এবং ভোটদানে বিরত থাকে। ভারত কেন এই প্রস্তাবে সামিল হয়নি তার পক্ষে যুক্তি দেন রাষ্ট্রসংঘে ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি রুচিরা কাম্বোজ।

বিষয়টি সম্পর্কে রুচিরা কাম্বোজ বলেন যে, একটি বিশেষ ধর্মকে নিয়ে আসা প্রস্তাবের সমর্থন করেনা ভারত সেজন্যই ভোটে অংশগ্রহণ করেননি তারা। হিন্দু, বৌদ্ধ, পার্সি সহ আরও কয়েকটি ধর্মের মানুষ প্রতিনিয়ত আক্রান্ত হচ্ছেন পাকিস্তান এবং বাংলাদেশ সহ বেশ কয়েকটি দেশে। তাই সমস্ত ধর্মের ওপর হামলা বন্ধ করার প্রস্তাব এলে ভারত সেখানে অবশ্যই অংশগ্রহণ করতো।

আরও পড়ুন : প্রথম দিনেই ফাঁস ফুড SI এর প্রশ্নপত্র! বাতিল হবে পরীক্ষা? প্রকাশ্যে বড় আপডেট

65eed4b570adb new pakistan pm shehbaz sharif recommends 19 names for cabinet awaiting approval from president zar 115355966 16x9

অবশ্য শুধু ভারত নয়, একইসাথে ভোটাভুটিতে অংশগ্রহণ করেনি ফ্রান্স, জার্মানি, ব্রিটেন-সহ আরও ৪৪টি দেশ। এছাড়া বিশেষজ্ঞদের মতে, দেশের অন্দরে CAA লাগু হওয়ার কারণে প্রস্তাবটি নিয়ে বিশেষ সতর্ক ছিল ভারত। এছাড়া জানিয়ে রাখি যে, এর আগেও ইসলামোফোবিয়ার বিরোধিতা করে দুইবার বিল নিয়ে আসা হয় কিন্তু সেবার বিল পাস হয়নি।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর