পাকিস্তানের সবচেয়ে বড় দুর্বলতাই এখন তাদের শক্তি! এশিয়া কাপে নামার আগে চিন্তায় রোহিতরা

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্কঃ গতকাল থেকে আরম্ভ হয়ে গেছে চলতি বছরের এশিয়া কাপের (2023 Asia Cup) লড়াই। প্রথম ম্যাচে নবাগত নেপালকে হারিয়ে বিশাল বড় ব্যবধানে জয় পেয়েছেন বাবর আজমরা (Babar Azam)। পাকিস্তানের ওই ম্যাচে ব্যাটিং, বোলিং এবং ফিল্ডিং তিন বিভাগেই দাপুটে পারফরম্যান্স দেখা গিয়েছে। নেপাল যদিও প্রতিপক্ষ হিসাবে খুবই দুর্বল, কিন্তু তাও হাইভোল্টেজ ভারত বনাম পাকিস্তান (India vs Pakistan) ম্যাচের আগে খুব একটা নিশ্চিন্ত থাকতে পারবেন না রোহিত শর্মারা (Rohit Sharma)।

   

ব্যাটিংয়ে দাপট:
কাল টসের প্রথমে বোলিং করতেন না শুরুটা ভালোই করেছিল নেপাল। প্রথমদিকের ওভারগুলোতে রানের গতি আটকে রেখে এবং দুই ওপেনারকে ড্রেসিংরুমে ফিরিয়ে চাপ বাড়িয়েছিলেন পাকিস্তানের ওপর। কিন্তু এরপর বাবর আজম এবং মহম্মদ রিজওয়ান পাকিস্তানের ইনিংসকে সামলে নেন। নিজের দোষে রান আউট হন রিজওয়ান। কিন্তু বাবর আজম ১১০ বলে নিজের শতরান সম্পূর্ণ করেন এবং আরও ২০ বল খেলে পেরিয়ে যান ১৫০ রানের গন্ডি। মাত্র ৬৭ বলে ঝোড়ো শতরান করেন ইফতিকার আহমেদও।

বোলিংয়ে দাপট:
বল হাতে পাকিস্তানের তিন পেসারই কালকে ছিলেন ভয়ংকর। তবে সবচেয়ে বেশি উইকেট পেয়েছেন লেগস্পিনার শাদাব খান। নাসিম শাহ, শাহীন আফ্রিদি, হ্যারিস রাউফ-দের আগুনে পেস বোলিংয়ের পাশাপাশি তার বিষাক্ত লেগস্পিনকে সামাল দেওয়া একটা বড় চ্যালেঞ্জ কত চলেছে ভারতের সামনে।

আরও পড়ুন: প্রথম ম্যাচেই সুপারহিট বাবর! এশিয়া কাপের মঞ্চে ভাঙলেন কোহলির বিরাট রেকর্ড

অপ্রত্যাশিত চমক:
পাকিস্তানের বোলিং বরাবরই শক্তিশালী। তাদের ক্রিকেট ইতিহাস ঘাটলে ভারতের মতো না হলেও বেশ কিছু কিংবদন্তি ব্যাটারের নাম উঠে আসবে। দুর্দান্ত বোলিং বা ভদ্রস্থ ব্যাটিং করাটা তাদের কাছে নতুন কিছু নয়। কিন্তু গতকাল নেপালের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের ফিল্ডিং সকলকে চমকে দিয়েছে। মহম্মদ রেজওয়ান, ফকার জামানরা গতকাল অসাধারণ ফিল্ডিং করেছেন। এই একটি জায়গায় পাকিস্তানের দুর্বলতা ও হাস্যকর ঘটনা নিয়মিত পরিবেশনের একটা ধারাবাহিক ইতিহাস রয়েছে। তাদের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স দেখে মনে হচ্ছে তারা নিজেদের সেই দুর্বলতা কাটিয়ে উঠেছে।

আরও পড়ুন: পাকিস্তানের বিরুদ্ধেই সচিনের বিরাট রেকর্ড ভাঙবেন কোহলি! এশিয়া কাপে রচিত হবে নতুন ইতিহাস

ভারত এবং পাকিস্তানের একে অপরের মুখোমুখি হবে সেপ্টেম্বর মাসের ২ তারিখে। চার বছর পর ওডিআই ফরম্যাটে কিন্তু দুই দল একে অপরের মুখোমুখি হচ্ছে। ভারত গত ছয় বছরে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ওডিআই ফরম‍্যাটে অপরাজিত। কিন্তু তারপর পাকিস্তান ক্রিকেটে অনেক বদল ঘটেছে এবং এখন তাদের হালকা ভাবে নেওয়ার কোনও উপায় নেই।

 

সম্পর্কিত খবর