টাইমলাইনআন্তর্জাতিক

ফ্রান্সের প্রস্তাবিত নতুন আইনে ঝাল লাগল পাকিস্তানের, হুঁশিয়ারি দিলেন পাক রাষ্ট্রপতি

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ইসলামিক কট্টোরবাদ দমনে ফ্রান্সের (france) জারি করা আইনে ঝাল লাগল পাকিস্তানের (pakistan)। ফ্রান্সের আভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করে পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতি আরিফ আলভী ফ্রান্সের এই আইনের বিরুদ্ধে তাঁর আপত্তি জানিয়েছেন। তাঁর দাবি, এই নতুন আইন প্রত্যাহার না করে নিলে, পরিণাম ভয়ঙ্কর হতে পারে।

ফ্রান্সের এই নতুন বিলের বিরুদ্ধে পাকিস্তানীদের ধারণা- ফ্রান্স সরকার ইমানুয়েল ম্যাক্রোন ইচ্ছাকৃতভাবে মুসলিমদের বিপদে ফেলার জন্য এই বিল পাশ করিয়েছেন। সেই কারণে তারা এই বিলের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছে।

ফ্রান্সের সংসদ মঙ্গলবার কট্টোরবাদ দমনের বিলকে সম্মতি দিয়ে দিয়েছে। এই আইনে বলা হয়েছে, ‘মসজিদ, মাদ্রাসার উপর নজরদারি আরও বাড়াতে হবে। পাশাপাশি বহু বিবাহ, জোর করে ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিবাহের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হবে। ধর্মনিরপেক্ষ ঐতিহ্যকে যারা দুর্বল করার চেষ্টা করছে, তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে’।

এই ঘটনা প্রসঙ্গে পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতি আরিফ আলভী (Arif Alvi) ক্ষোভ উগরে দিয়ে বলেছেন, ‘ফ্রান্সের নাগরিকদের একত্রি করতে হবে, নাহলে ধর্মীয় ভিত্তিতে বৈষম্য প্রচার করতে হবে। ফ্রান্সের এই আইন জাতিসংঘের নিয়ম অমান্য করেছে এবং সামাজিক সদ্ভাবের বিরুদ্ধে রয়েছে। ফ্রান্সের এই পদক্ষেপকে কিছুতেই এগোতে দেওয়া যাবে না’।

আরিফ আলভী আরও বলেছেন, ‘ফ্রান্সের এই আইন ইসলাম যারা জানেন না, তাদের ইসলামের বিরুদ্ধে ক্ষেপিয়ে তুলছে। ফ্রান্সের এই কর্মকান্ড ঘৃণা এবং শত্রুতার প্রচার করছে দেশে। এই আইন অবিলম্বে প্রত্যাহার করে না নিলে, এর মারাত্মক পরিণতি হবে’। এই ঘটনায় পাকিস্তান সহ ইসলাম দেশগুলো ফ্রান্সের বিরুদ্ধে ক্ষিপ্ত হয়ে পড়ে।

Back to top button