দূরপাল্লার ট্রেনের কামরায় নেই বিদ্যুৎ! রেগেমেগে টিটিকেই বাথরুমে বন্ধ করে দিল যাত্রীরা, হুলস্থূল কাণ্ড

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক : ভারতীয় রেলওয়ে (Indian Railways) নেটওয়ার্ক বিশ্বের বৃহত্তম রেল নেটওয়ার্কগুলির মধ্যে একটি হিসাবে বিবেচিত হয়। প্রতিদিন প্রতিনিয়ত দেশের কোটি কোটি মানুষ এই ট্রেনের ভরসায় যাতায়াত করে। শুক্রবারও, সুহেলদেব এক্সপ্রেসের যাত্রীরা দিল্লির আনন্দ বিহার থেকে ইউপির গাজিপুর পর্যন্ত একই রকম যাত্রা শুরু করেছিলেন।। তবে যাত্রা শুরু করার পর এমন কিছু ঘটে যায় যে, ট্রেনের দুই বগির যাত্রীরা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন।

এইদিন দিল্লির আনন্দ বিহার থেকে ইউপির গাজিপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়ার কিছুক্ষণ পরেই ট্রেনের দুটি বগির বিদ্যুৎ ব্যবস্থা বিকল হয়ে যায়। আর তাতেই ঘটে যায় অঘটন। রীতিমত ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে সংশ্লিষ্ট কামরা দুটির যাত্রীরা। এমনকি টিটিকে ডেকে নিজেদের ক্ষোভ-ও দেখাতে থাকে তারা। তবে বিক্ষোভের পাশাপাশি তারা যে এরকম অভাবনীয় কিছু করতে পারে তা ছিল কল্পনাতীত।

জানা যাচ্ছে সুহেলদেব সুপারফাস্ট এক্সপ্রেস (২২৪২০) ট্রেনটি দিল্লির আনন্দ বিহার টার্মিনাল ছাড়ার কয়েক মিনিট পরে, বি 1 এবং বি 2 কোচের আলো নিভে যায়। এবং বৈদ্যুতিক সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার কারণে এসিও কাজ করা বন্ধ করে দেয়। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে যাত্রীরা প্রথমে টিটিইকে ঘেরাও করে এবং পরে তাকে ধরে টয়লেটে আটকে রাখে। ঘটনাটি সামনে আসার পর থেকেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে নেটদুনিয়ায়।

আরও পড়ুন : বারবার লটারি কেটেও ব্যর্থ, এবার এই সিক্রেট ফর্মুলায় বাজিমাত! বীরভূমের হোটেলকর্মীর খুলে গেল কপাল

আসলে কেউ যে টিটিকে ধরে বাথরুমে বন্ধ করে দিতে পারে সেটা কেউ ভাবতেই পারছেনা। যদিও ঘটনার খবর পাওয়া মাত্রই তৎপরতার সাথে কাজ শুরু করে দেয় রেল কর্তৃপক্ষ। আরপিএফ তথা রেল পুলিশের তরফ থেকে যাত্রীদের আশ্বাস দেওয়া হয়, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সমস্যার সমাধান করা হবে।

আরও পড়ুন : দাম ৪০ হাজারেরও কম, মোবাইল চার্জার দিয়েই হবে চার্জ! বাজার কাঁপাচ্ছে এই ইলেকট্রিক স্কুটির ফিচার্স

এবং রাত্রি ১ টার সময় দুন্ডলা স্টেশনে দু ঘন্টারও বেশি সময় ধরে চলে মেরামতির কাজ। ইঞ্জিনিয়ারদের একটি টিম সেখানে গিয়ে অনুসন্ধান শুরু করে। প্রথমে বি 1 কোচের সমস্যা ঠিক করে এবং পরে বি 2 কোচেও বিদ্যুৎ পুনঃস্থাপন করা হয় এবং ট্রেনটি তার গন্তব্যের দিকে রওনা দেয়।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর