আন্তর্জাতিকটাইমলাইন

২০৩০ সালে বন্ধ হয়ে যাবে সমস্ত পেট্রোল ও ডিজেল চালিত গাড়ি

আর মাত্র ৯ বছর। তার পরেই সমস্ত পেট্রোল ও ডিজেল (petrol Diesel) চালিত গাড়ি বন্ধ হয়ে যাবে, এমনিটাই ঘোষণা করলেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। ২০৩০ সাল থেকে সেদেশে সমস্ত পেট্রোল ডিজেল চালিত গাড়ি কেনা ও বেচা বন্ধ হবে। পরিবেশ রক্ষা করতেই এহেন সিদ্ধান্ত বলে জানানো হয়েছে।

পেট্রোল ও ডিজেল চালিত গাড়ি নিষিদ্ধ হওয়া ‘গ্রিন প্ল্যান’ এর অংশ। প্রথমে ঠিক হয়েছিল ২০৪০ সালে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হবে। কিন্তু ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত ভাবে সক্রিয় হয়ে তা কমিয়ে ২০৩০ করেছেন বলে জানা যাচ্ছে। পাশাপাশি পরমাণু, সৌর এবং বায়ুশক্তির ব্যবহার বাড়াতে ১২০০ কোটি ইউরো (প্রায় ১ লক্ষ ৫ হাজার ৭৯০ কোটি টাকা)-র ব্যয় করা হবে। এর ফলে দেশে আড়াই লাখের বেশি নয়া কর্মসংস্থান হবে বলেও দাবি করছে সে দেশের সরকার। যদিও বিরোধীদের দাবি এর ফলে দেশের অর্থনীতির বিশাল ক্ষতি হবে।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই মোদি সরকারের রেল মন্ত্রী পিযূষ গোয়েল জানিয়েছেন, ভারতীয় রেল ২০৩০ সালের মধ্যে নেট জিরো রেল হবে। ভারতীয় রেলের কার্বন নিঃসরণ নামিয়ে আনা হবে শূন্যে। রেলমন্ত্রী আরো বলেন, প্রতিবছর ৮০০ কোটি যাত্রী ও ১২০০ কোটি টন পণ্য পরিবাহী ভারতীয় রেল পুরোটাই হয়ে উঠবে ‘গ্রিন’.

কার্বন নিঃসরণ কমাতে ডিজেল ইঞ্জিনের ব্যাবহার সম্পূর্ণ বন্ধ করতে হবে দেশে। তার বদলে সব ট্রেনই চালাতে হবে  বিদ্যুতে। ২০১৪-তে ভারতীয় রেল কার্বন নিঃসরণ করেছিল ৬৮ লক্ষ ৪০ হাজার টন। এই নিঃসরণকেই শূন্যে নামাতে চাইছে মোদি সরকার।রেলমন্ত্রী জানিয়েছেন, ২০২৩ সালের মধ্যেই ভারতীয় রেল পুরোপুরি ইলেকট্রিক নির্ভর হয়ে উঠবে

 

Back to top button