“আমি লজ্জিত, দয়া করে এটা বলবেন না”, ভক্তদের উদ্দেশ্যে “বিব্রত” বিরাট, দিলেন বড় প্রতিক্রিয়া

বাংলা হান্ট ডেস্ক: IPL (Indian Premier League)-এর ঠিক আগে RCB (Royal Challengers Bengaluru) চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে হাই-প্রোফাইল “RCB আনবক্স” ইভেন্টের সময়ে বেশ কয়েকটি নতুন বিষয় সামনে এনেছে। ফ্র্যাঞ্চাইজিটি ব্যাঙ্গালোরের পরিবর্তে বেঙ্গালুরু নাম পরিবর্তনের পাশাপাশি জার্সিতে নীল রঙও অন্তর্ভুক্ত করেছে। এদিকে, ওই অনুষ্ঠানে ভারতীয় দলের (India National Cricket Team) “রান মেশিন” বিরাট কোহলি (Virat Kohli) একটি বড় প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। যেটি ইতিমধ্যেই উঠে এসেছে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে।

মূলত, কোহলি ভক্তদের কাছে হৃদয়ের গোপন কথা জানাতে গিয়ে জানান যে তাঁকে “কিং” নামে অভিহিত করা উচিত নয়। অর্থাৎ, ভক্তদের দেওয়া “কিং কোহলি” নামটির পরিপ্রেক্ষিতেই তিনি এই বিষয়টি জানান। পাশাপাশি, তিনি এটাও বলেন যে, এই নামটি তাঁকে লজ্জিত করে।

   

নিজেকে “কিং” বলতে রাজি নন বিরাট কোহলি: প্রাক্তন RCB অধিনায়ক কোহলি ভক্তদের তাঁর উদ্দেশ্যে “কিং” নামটি ব্যবহার না করার জন্য জানান। এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি যে, কোহলির দুর্দান্ত রেকর্ড এবং দীর্ঘ সময়ের জন্য তাঁর অনবদ্য পারফরম্যান্স বিবেচনা করে তাঁকে “ক্রিকেট কিং” নাম দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে তাঁর ভক্তরা সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর জন্য এই নামটি ব্যবহার করেন। মূলত, এর পেছনে ভক্তদের যুক্তি ছিল যে, ভারতের আরেক কিংবদন্তি ক্রিকেটার শচীন তেন্ডুলকার যদি “ক্রিকেটের ঈশ্বর” হন তবে যিনি তাঁর অনেক রেকর্ড ভেঙেছেন অর্থাৎ কোহলিকে “কিং” বলা উচিত। যদিও, এবার কোহলি নিজেই জানালেন যে, এই নামটি তাঁকে বিব্রত করে তোলে।

আরও পড়ুন: এবার Unilever-এ হবে ছাঁটাই! ৭,৫০০ কর্মচারীর চাকরি বিপদে, ডিমার্জারের পথে আইসক্রিম ব্যবসা

“প্লিজ, বিরাট বলুন”: আনবক্স ইভেন্টে দানিশ স্যাত যখন বিরাটকে প্রশ্ন করেন যে, “রাজার অনুভূতিটি ঠিক কেমন?” তখন কোহলি জানান যে, “আবার ফিরে এসে ভালো লাগছে।” আর ঠিক তখনই ভক্তদের তুমুল উচ্ছ্বাস পরিলক্ষিত হয়। তারপর কোহলি হাসতে হাসতে জানান, “আমাকে কথা বলতে দিন। বন্ধুরা, আজ রাতে আমাদের চেন্নাই যেতে হবে। আমাদের একটি চার্টার্ড ফ্লাইট আছে, তাই আমাদের সময় নেই (হাসি)। প্রথমত, আমাকে সেই নামে (কিং) ডাকা বন্ধ করতে হবে। আমি ফাফ (ফাফ ডুপ্লেসি) বলছিলাম যে আপনারা যখন আমাকে প্রতি বছর এই নামে ডাকেন তখন এটা আমার জন্য খুবই বিব্রতকর লাগে….তাই শুধু আমাকে বিরাট বলে ডাকুন।”

আরও পড়ুন: লক্ষ্য চ্যাম্পিয়ন হওয়া! নাম বদল করে IPL-এর মঞ্চে মাঠে নামবে RCB, হল বড় ঘোষণা

শচীনও তাঁকে “ঈশ্বর” বলে অভিহিত করতে বারণ করেন: প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, শচীন তেন্ডুলকার বহু বছর আগে তাঁর ভক্তদের কাছেও একই অনুরোধ করেছিলেন। কিন্ত, তাঁর অবসরের পর ১১ বছর অতিক্রান্ত হলেও আজও তাঁর অনুরাগীরা তাঁকে “ক্রিকেটের ঈশ্বর” বলে মনে করেন।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর