পরীক্ষা শুরুর কয়েক ঘন্টার মধ্যেই ভাইরাল টেটের প্রশ্নপত্র! হতাশ পরীক্ষার্থীরা, মুখ খুলল পর্ষদ

বাংলা হান্ট ডেস্ক : ২৪ ডিসেম্বর, রবিবার অনুষ্ঠিত হল প্রাথমিক টেট পরীক্ষা (Primary TET)। পরীক্ষা যাতে স্বচ্ছতার সাথে হয় তার জন্য একাধিক পদক্ষেপ নিয়েছিল প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। তবুও শেষ রক্ষা হলনা। বেলা ১২টায় পরীক্ষা শুরু হওয়ার ১ ঘন্টা পরেই ভাইরাল হয়ে গেল প্রশ্নপত্র (Question Paper Leaked)। টেটের ভাইরাল প্রশ্নপত্র এখন সোশ্যাল মিডিয়ায়। নিরাপত্তা ব্যবস্থায় কোথায় ঘাটতি রয়ে গেল? কী বলছে পর্ষদ?

   

আজ সকাল থেকেই রাজ্য জুড়ে ছিল টেট পরীক্ষা ঘিরে ব্যস্ততা। একদিকে ছিল ‘লক্ষ কন্ঠের গীতাপাঠ’ অন্যদিকে টেট ঘিরে ব্যস্ততা। পরিবহণ ব্যবস্থাকে ঠিক রাখতে জায়গায় জায়গায় ট্রাফিক পুলিশও তৎপর ছিল। সেই সাথে যাতে স্বচ্ছতার সাথে পরীক্ষা সম্পন্ন হয় সেই দিকেও নজর রাখার চেষ্টা করেছিল পর্ষদ। মোবাইল তো বটেই সেই সাথে জল, ঘড়িতেও জারি করা হয়েছিল নিষেধাজ্ঞা।

এরকম কড়া নিরাপত্তা থাকা সত্ত্বেও ফাঁস হয়ে গেল পরীক্ষার প্রশ্নপত্র। পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর দেখা গেল, সোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া প্রশ্ন আর আসল প্রশ্ন হুবহু এক। পরীক্ষার্থীদের দাবি, দুটি প্রশ্নপত্রই হুবহু এক। যদিও প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের চেয়ারম্যানের দাবি, এই অভিযোগ ভিত্তিহীন। তবে ডিআই এর বক্তব্য, এই অভিযোগ সত্য হলে অবশ্যই তদন্ত শুরু হয়।

আরও পড়ুন : ৫০ বছর বয়সে ফের স্কুলে ফিরে গেলেন শ্রীলেখা

এদিকে এই ঘটনাকে ‘প্রশ্নপত্র ফাঁস’ বলতে নারাজ প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের সভাপতি গৌতম পাল। পর্ষদ সভাপতির কথায়, ‘আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করেছি যে, কেউ যাতে মোবাইল নিয়ে না ঢোকে, পরীক্ষা নির্বিঘ্নেই হয়। কোনও পরীক্ষার্থী যদি অসৎ উদ্দেশ্যে, অর্থাৎ পরীক্ষা দেওয়ার নাম করে বদনাম করার জন্য অসৎ উদ্দেশ্যে যায় এবং সেটা বাইরে বের করে দেয়। এটা আমরা তো প্রশ্নপত্র বলব না। সরকার ও পর্ষদকে কালিমালিপ্ত করার জন্য এটা করা হয়েছে। উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে এটা করা হয়েছে’।