নিত্যযাত্রীদের জন্য সুখবর! এবার শিয়ালদা টয়লেটে গেলে আর লাগবে না খুচরো, রেল আনছে এই সুবিধা

   

বাংলাহান্ট ডেস্ক : ডিজিটাল পেমেন্টের যুগে বদল এসেছে লেনদেনের ক্ষেত্রে। সমাজের সব স্তরেই এখন অনলাইন মাধ্যমে বেচাকেনা চলছে। এমনকি অফলাইন দোকান থেকে কেনাকাটা করলেও টাকা মেটানো যাচ্ছে অনলাইন মাধ্যমে। তবে বাথরুমে গিয়ে যদি QR -এর মাধ্যমে টাকা পরিশোধ করতে হয় তাহলে কেমন হবে?

এবার এই ধরনের যুগান্তকারী উদ্যোগ নিল ভারতীয় রেল। ভারতীয় রেলের তরফ থেকে সাম্প্রতিককালে বেশ কিছু সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে। গ্রাহকের যাতে আরো বেশি করে সুবিধা দেওয়া যায় সেই দিকটি খতিয়ে দেখছে রেল বিভাগ। তবে ভারতীয় রেলের এই নতুন উদ্যোগ শুনে অনেকেই অবাক হয়ে গেছেন।

আরোও পড়ুন : ৬ মাস টাকা তুলতে পারবেন না গ্রাহকরা! এই ব্যাংক এবার পড়ল RBI’র শাস্তির মুখে

যাদের ট্রেন ধরার থাকে তারা অনেক সময় আগেভাগে এসে পৌঁছে যান স্টেশনে। স্টেশনে এসে অনেকের শৌচালয় ব্যবহারের প্রয়োজন হয়। তবে সেক্ষেত্রে বারবার বাথরুম যাওয়ার জন্য মূল সমস্যা হয়ে দাঁড়ায় খুচরো পয়সা। তবে রেল যাত্রীরা এবার এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে চলেছেন। এবার শিয়ালদা স্টেশনের শৌচালয়ে রেলের পক্ষ থেকে বসানো হল QR কোড।

আরোও পড়ুন : পড়ুয়াদের জন্য দুর্দান্ত উদ্যোগ সরকারের! স্কলারশিপ পাবেন ৫৪০০-৭৮০০ টাকার, কারা আবেদনের যোগ্য ?

প্রত্যেক যাত্রী এবার এই কিউআর কোডের মাধ্যমে টাকা পেমেন্ট করতে পারবেন শৌচালয়ের। নিঃসন্দেহে রেলের এই সিদ্ধান্ত যুগান্তকারী। একদিকে যেমন যাত্রীদের খুচরো নিয়ে সমস্যা থাকবে না, অন্যদিকে শৌচালয়ের দায়িত্বে থাকা কর্মীদের সাথে ঝামেলা হওয়া থেকে বাঁচা যাবে।

রেলের পক্ষ থেকে এই বিষয়টি নিয়ে জানানো হচ্ছে, “যাত্রীদের সুবিধার্থে এবং ডিজিটালাইজড পেমেন্টের সূচনা করার জন্য, আমরা স্টেশনগুলিতে পে-অ্যান্ড-ইউজ টয়লেটের জন্য একটি কিউআর-কোডেড পেমেন্ট সিস্টেম চালু করেছি।”

newwwwwwwwwww 1

পূর্ব রেল আরো জানাচ্ছে, ‘পেমেন্ট ব্যবস্থায় স্বচ্ছতা আনতেই এই উদ্যোগ। যাত্রী নিরাপত্তা এবং গোপনীয়তা বজায় রেখেই এই ব্যবস্থা চলবে। শুধু তা-ই নয়, যাত্রীদের থেকে অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার যে অভিযোগ ওঠে, তা এই ব্যবস্থা চালু হলে মোকাবিলা করা সম্ভব হবে বলে মনে করছে রেল।’

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর