বিনিয়োগকারীরা মালামাল! বছর শেষে ফুলেফেঁপে উঠল রতন টাটার প্রিয় কোম্পানি

বাংলা হান্ট ডেস্ক: বছর শেষে বড় খেল দেখাল দেশের (India) বর্ষীয়ান শিল্পপতি রতন টাটার (Ratan Tata) প্রিয় কোম্পানি টাটা মোটরস (Tata Motors)। মূলত, ওই সংস্থা বছরের শেষ ট্রেডিং দিনেও বিনিয়োগকারীদের খুশি করতে কোনো খামতি রাখেনি। ট্রেডিং সেশনের কয়েক মিনিটের মধ্যেই কোম্পানির ভ্যালুয়েশনে ১১,৫০০ কোটি টাকার বৃদ্ধি দেখা গেছে।

   

এদিকে, আমরা যদি সামগ্রিক বছরের কথা বলি সেক্ষেত্রে কোম্পানিটির শেয়ার বেড়েছে ১০০ শতাংশেরও বেশি। এর অর্থ হল কোম্পানির শেয়ার বিনিয়োগকারীদের দ্বিগুণ আয় প্রদান করেছে। সবথেকে উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, আগামী দিনে টাটা মোটরসের শেয়ার আরও বাড়তে পারে। এমতাবস্থায়, চলুন জেনে নিই কিভাবে এই কোম্পানির শেয়ার বিনিয়োগকারীদের লাভবান করে তুলেছে।

Ratan Tata's favorite company made a huge profit at the end of the year

রেকর্ড পর্যায়ে পৌঁছেছে টাটা মোটরসের শেয়ার: উল্লেখ্য যে, টাটা গ্রুপের মোটর কোম্পানি টাটা মোটরসের শেয়ার বছরের শেষ ব্যবসায়িক দিনে রেকর্ড পর্যায়ে পৌঁছেছে। তথ্য অনুসারে, কোম্পানির শেয়ার ৬.৪১ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে দিনের সর্বোচ্চ ৮০২.৬০ টাকায় পৌঁছে যায়। তবে, দুপুর ১টা ৪৫ মিনিটে কোম্পানিটির শেয়ার প্রায় ৪ শতাংশ বেড়ে ৭৮৩.৭৫ টাকায় লেনদেন হতে দেখা যায়। এদিকে, একদিন আগে এই শেয়ার ৭৫৪.২০ টাকায় বন্ধ হয়েছিল। তবে, আজ কোম্পানিটির শেয়ার প্রথমবারের মতো ৮০০ টাকার গণ্ডি ছাড়িয়েছে। দিনের শেষে শেয়ারটি দাঁড়িয়ে থাকে ৭৭৯.৯৫ টাকায়।

আরও পড়ুন: ভয় ধরাচ্ছে RBI-ইডি! “রিস্ক” না নিয়ে বিদেশি অ্যাকাউন্টে জমা টাকা ফেরত আনছেন ভারতীয়রা

১১,৫০০ কোটি টাকার ভ্যালুয়েশন বৃদ্ধি: জানিয়ে রাখি যে, টাটা মোটরসের ভ্যালুয়েশনেও বিপুল বৃদ্ধি ঘটেছে। ট্রেডিং সেশন চলাকালীন, কোম্পানির শেয়ার ৫২-সপ্তাহের উচ্চ স্তরে পৌঁছে যায় এবং কোম্পানির মার্কেট ক্যাপ পৌঁছে যায় ২,৬২,০৫৬.৩৪ কোটি টাকায়। এদিকে, একদিন আগে কোম্পানির মার্কেট ক্যাপ ছিল ২,৫০,৫৬১.৪৭ কোটি টাকা। এর মানে হল মাত্র এক দিনের ব্যবধানেই কোম্পানির ভ্যালুয়েশন ১১,৪৯৪.৮৭ কোটি টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে।

আরও পড়ুন: বর্ষবরণে নিষেধাজ্ঞা! পাকিস্তানে জারি নতুন ফতোয়া

দ্বিগুণ আয় করেছে কোম্পানি: চলতি বছরে টাটা মোটরসের শেয়ার দ্বিগুণ হয়েছে। এর মানে টাটা মোটরসে বিনিয়োগকারীদের আয়ও দ্বিগুণ হয়েছে। গত বছরের শেষ ব্যবসায়িক দিনে যখন স্টক মার্কেট বন্ধ হয়েছিল, তখন কোম্পানির শেয়ার ছিল ৩৮৮.১০ টাকায়। এরপরে বৃদ্ধি দেখা যায় এবং কোম্পানির শেয়ার ৮০২.৬০ টাকায় পৌঁছে যায়। অর্থাৎ কোম্পানিটির শেয়ার দর বেড়েছে ১০৭ শতাংশ।

সম্পর্কিত খবর