পার্থের মতো মানিকেরও গোপন খাজানার হদিস! যা জানাল ED, শোরগোল আদালতে

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ নিয়োগ দুর্নীতির (Recruitment Scam) নিয়ে শোরগোল রাজ্যে! কেলেঙ্কারির অভিযোগে বহু নেতা, শিক্ষা দফতরের আধিকারিক সহ জেলবন্দি প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের প্রাক্তন সভাপতি মানিক ভট্টাচার্য (Manik Bhattacharya)। আবার পার্থ ঘনিষ্ঠ অর্পিতারও বর্তমানে দিন কাটছে জেলেই।

পার্থ ও মানিক এই দুজনার মধ্যে ভীষণ মিল। গ্রেফতারির পর এখনও তৃণমূলের বিধায়ক পদে রয়েছেন পার্থ-মানিক। এবার পার্থের সাথে মানিকের আরেক মিল খুঁজে পেল ED। যা নিয়ে রীতিমতো শোরগোল পড়ল আদালতে।

   

এদিন ইডির আইনজীবীর এহেন দাবিতে আরও ঘনাচ্ছে রহস্য। যদিও পাল্টা মানিক ভট্টাচার্যের আইনজীবীর দাবি, তদন্তকারীরা যে স্কুলের কথা বলছে সেটি প্রায় ১০০ বছরের পুরনো একটি সরকারি স্কুল। বিধায়কের নিজের বা অংশীদারীতেও কোনও বেসরকারি স্কুল নেই।

আরও পড়ুন: বুধে ED দফতরে নাকি I.N.D.IA জোট এর বৈঠকে! কোথায় যাচ্ছেন অভিষেক? জানা গেল গোপন তথ্য

এদিন আদালতে ইডি জানায়, এই পার্থ-মানিক জুটিই দুর্নীতির আসল মাথা। দুজনে মিলে পরিকল্পনা মাফিক মোটা টাকার বিনিময়ে চাকরি বিক্রির ব্যবসা চালিয়েছে। আর সেই টাকা ঢালা হয়েছে একাধিক জায়গায়। এমনকী পার্থের মৃত স্ত্রীর নামে তৈরী সেই স্কুলেও ।

manik

আরও পড়ুন: হল না কোনও সুরাহা! কেষ্টর হাতে মাত্র ৮ দিন সময়, তারপরই বাংলা ছাড়িয়ে সব যাচ্ছে দিল্লি

হাইকোর্টের বিচারপতি তীর্থঙ্কর ঘোষের এজলাসে এদিন মামলা চলছিল। এই মামলায় এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট চার্জশিট দিতে কেন এত দেরি হচ্ছে সে বিষয়ে প্রশ্ন করেন। যদিও ইডির আইনজীবী জানান তদন্তে অগ্রগতি হচ্ছে। মামলার পরবর্তী শুনানি তিন সপ্তাহ পর।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর