‘দীর্ঘদিনের সম্পর্ক…’, গৃহীত তাপস রায়ের ইস্তফাপত্র, বিধানসভা থেকে বেরিয়েই যা বললেন BJP নেতা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ সপ্তাহের শুরুতেই তৃণমূল ছাড়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন তাপস রায় (Tapas Roy)। সেই সঙ্গেই বিধায়ক পদ থেকেও ইস্তফা দেন তিনি। তবে বুধবার জানা যায়, পদ্ধতিগত ত্রুটির কারণে বরানগরের বিধায়কের পদত্যাগপত্র (Resignation Letter) গৃহীত হয়নি। বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় নতুন করে ইস্তফাপত্র জমা দেওয়ার কথা বলেন। জটিলতা শেষে বৃহস্পতিবার গৃহীত হল তাপস রায়ের পদত্যাগপত্র।

বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপিতে (BJP) যোগ দিয়েছেন তাপস রায়। আজ বিধানসভায় (WB Assembly) ইস্তফাপত্র দিতে এসে খানিকটা আবেগপ্রবণ হয়ে পড়তে দেখা যায় এই প্রবীণ রাজনীতিককে। বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় (Biman Banerjee) সম্পর্কে সংবাদমাধ্যমের কাছে বলেন, ‘১৯৮৫ সালে আমরা একসঙ্গে কাউন্সিলর ছিলাম। দীর্ঘদিনের সম্পর্ক। আজ চা খেয়েছি’।

আগেরবার ইস্তফাপত্র কেন গৃহীত হয়নি সেকথাও জানান তাপসবাবু। তিনি বলেন, পদত্যাগপত্র হাতে লিখে জমা দিতে হয়। তবে তিনি টাইপ করে জমা দিয়েছিলেন। অন্যদিকে ‘দীর্ঘদিনের সঙ্গী’ তাপসের তৃণমূল (TMC) ছাড়ায় কিছুটা হতাশার সুর শোনা যায় বিধানসভার অধ্যক্ষের গলাতেও।

আরও পড়ুনঃ জেগেই প্রথম রাত কাটালেন শাহজাহান! কী এমন হল CBI হেফাজতে? শুনলে চোখে জল আসবে

বিমানবাবু বলেন, ‘দীর্ঘদিনের সঙ্গী তাপস নেই, একটু তো খারাপ লাগবেইন। অনেকেই ছিল, যারা এখন চলে গিয়েছে’। পাশাপাশি এটাও স্পষ্ট করে দেন, যাওয়া-আসা একটি গতানুগতিক নিয়মের অংশ। সেটা মেনে নেওয়া ছাড়া কোনও উপায় নেই। এটা মেনেই কাজ করতে হয়। কে রইলেন এবং কে চলে গেলেন সেটা বড় বিষয় নয়।

প্রসঙ্গত, তৃণমূল ছাড়ার পর থেকে একাধিক দলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন তাপস রায়। গতকাল বিজেপিতে যোগদানের পরেও দেখা গিয়েছে এক দৃশ্য। প্রবীণ রাজনীতিক দাবি করেন, বাংলার বুকে একটা অরাজক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। এখানেই না থেমে তৃণমূল সরকারকে শেখ শাহজাহান, শিবু হাজরা, উত্তম সর্দারদের সরকার বলেও আক্রমণ করেন তিনি।

tapas roy resignation letter accepted in wb assembly

গেরুয়া পতাকা হাতে তুলে নেওয়ার পর গতকাল শান্তির বাংলা গড়ার শপথ নেন তাপসবাবু। পাশাপাশি জানান, দলের তরফ থেকে তাঁকে যে দায়িত্ব দেওয়া হবে তিনি সেটাই অত্যন্ত নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করবেন। অতীতে যেমন নিষ্ঠার সঙ্গে রাজনীতি করেছেন, আগামীদিনের এর অন্যথা হবে না বলে জানান তিনি।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর