‘বাপেরও বাপ আছে”, প্রকাশ্যে তৃণমূল নেতাকে হুঁশিয়ারি সায়নী ঘোষের! কারণ কী?

   

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ রাজ্যে বেজে গিয়েছে পঞ্চায়েত ভোটের (Panchayat Election ) দামামা! বছর ঘুরলেই রাজ্যে ‘ভোটদান অনুষ্ঠান’। বিভিন্ন সভা থেকে প্রায়শই পঞ্চায়েত ভোট অবাধ ও শান্তিপূর্ণ হবে বলে দাবি করেন শাসক দলের সেকেন্ড ইন কমাণ্ড অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee)। অন্যদিকে, নেতার প্রতিশ্রুতিতে রীতিমতো জল ঢেলে রাজ্যের বিভিন্ন এলাকার বিভিন্ন শাসকদলের নেতা মন্ত্রীদের মুখ থেকে শোনা যাচ্ছে বিরোধীদের টাইট দেওয়ার হুঁশিয়ারি। এবার এই প্রসঙ্গেই মুখ খুললেন তৃণমূল নেত্রী সায়নী ঘোষ (Saayoni Ghosh)।

প্রসঙ্গত, শনিবার নদিয়ার চাপড়ায় ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি শুকদেব ব্রহ্ম (Sukhdev Brahma) এক কর্মীসভায় রীতিমতো হুমকির সুরে বলেন, “বিজেপি-সিপিএম সহ সমস্ত দল শুনে রাখুন, ভোটের দিন আমরা ঘর থেকে বেরোতে দেব না। সেদিন শুধুমাত্র ময়দানে থাকবে তৃণমূল কংগ্রেস।”

তৃণমূল নেতার এই মন্তব্যের পরই রীতিমতো শোরগোল পরে যায় রাজনীতির অন্দর মহলে। তবে এই মন্তব্যের বিরুদ্ধে সরব হন তৃণমূলের যুবনেত্রী সায়নী ঘোষ। রবিবার বিকেলে পূর্ব বর্ধমানের আউশগ্রামের একটি অনুষ্ঠানে এই বিষয়ে মন্তব্য করে যুবনেত্রী বলেন, “এসব বড় বড় কথা যারা বলছেন তারা নিজেকে মমতা বন্দ্যপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের থেকেও বড় নেতা ভাবছেন। যারা নিজেদের দলের থেকেও বড় মনে করবেন, তাদের ক্ষেত্রে মানুষ অবধি সুযোগ যাবে না। দলই ঠিক সময়ে তাদের বসিয়ে দেবে।”

পাশাপাশি কাঁথির প্রসঙ্গ তুলে নেত্রী বলেন, “দেখছেন তো অভিষেকদা গেলেন, পঞ্চায়েত প্রধান, উপপ্রধান, অঞ্চল সভাপতি ইস্তফা দিলেন। কেউ যদি মনে করেন আমরা দল করি, যা খুশি বলে ফেলব, করে ফেলব তা চলবে না।” একইসঙ্গে তিনি বলেন, “দু’মাস পর খেলা হবে।”

1611084486 saayoni ghosh

এদিন বর্ধমান জনসভা থেকে কড়া হুঁশিয়ারি শোনা গেলো তৃণমূল যুব নেত্রীর কণ্ঠে। অন্যদিকে, সায়নীর এই মন্তব্য নিয়েও যথেষ্ট জলঘোলা হচ্ছে বিরোধী শিবিরে।’ এই সবটাই পরিকল্পিত নাটক’ এমন দাবিও তুলছেন বিজেপির কিছু নেতৃত্ব।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর