টাইমলাইনবিনোদনরাজনীতি

‘মোদী নামক মহিষাসুরকে মমতা নামক দূর্গা বধ করেছেন’, প্রধানমন্ত্রীকে বেনজির আক্রমণ সায়নীর

বাংলাহান্ট ডেস্ক: কথা দিয়েছিলেন পশ্চিম বর্ধমান থেকে জেলা সফর শুরু করবেন। কথা রাখলেন যুব তৃণমূলের সভাপতি সায়নী ঘোষ (saayoni ghosh)। আসানসোল দক্ষিণ থেকে বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের হয়ে প্রার্থী হয়েছিলেন তিনি। উদয়াস্ত পরিশ্রম করে প্রচার করার পরেও জয়ের মুখ দেখতে পারেননি। কিন্তু আসানসোল দক্ষিণ ও পশ্চিম বর্ধমানের বাসিন্দারা তাঁর হৃদয়ের খুব কাছাকাছি রয়ে গিয়েছেন। এদিন জেলা সফর শুরু করেই একথা বলেন সায়নী।

এদিনের সফর শুরুর প্রথম দিনের একটি ভিডিও টুইটারে শেয়ার করেছেন অভিনেত্রী। একুশের নির্বাচনের সময় দলের যে কর্মীরা কঠোর পরিশ্রম করেছেন তাদের ধন‍্যবাদ জানান সায়নী। আর দলীয় নেতৃত্বদের অনুরোধ করেন শুধুমাত্র নির্বাচনের সময় নয়, অন‍্য সময়েও এই কর্মীদের ডেকে পাঠাতে। সায়নীর কথায়, ‘দলে জায়গা করে নিন। প্রশ্ন করতে শিখুন। কোনো নেতার বাড়ির বাজার করতে আপনারা তৃণমূল কংগ্রেস করছেন না।’


বিজেপির উদ্দেশেও তীব্র কটাক্ষ শানিয়েছেন যুব তৃণমূল সভাপতি। তাঁর স্পষ্ট বক্তব‍্য, ‘এটা সুনার বাংলা নয়, সোনার বাংলা’। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকেও (narendra modi) তোপ দাগতে ছাড়েননি তিনি। সায়নী বলেন, ‘গোটা পৃথিবী গোটা দেশ দেখেছে কীভাবে মোদী নামক এক মহিষাসুরকে মমতা নামক এক দূর্গা বধ করেছেন।’

সুযোগ পেলেই বারে বারে মোদীকে আক্রমণ করেছেন সায়নী। সম্প্রতি ১৫ অগাস্ট ৭৫ তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ভাষন দেওয়ার সময় স্বাধীনতা আন্দোলনে বিভিন্ন রাজ‍্যের বীরাঙ্গনাদের কৃতিত্ব স্মরণ করছিলেন প্রধানমন্ত্রী। তখনি তমলুকের মাতঙ্গিনী হাজরাকে অসমের বলে বড়সড় ভুল করে বসেন নরেন্দ্র মোদী। তাঁর এই বেফাঁস মন্তব‍্য নিয়ে তীব্র কটাক্ষ করে বিরোধী দল। প্রধানমন্ত্রীকে ক্ষমা চাইতে হবে বলে দাবি করেন তৃণমূলের রাজ‍্য সম্পাদক কুণাল ঘোষ।

অপরদিকে এক ব‍্যঙ্গাত্মক টুইট করে নরেন্দ্র মোদীকে বেঁধেন সায়নী। সদ‍্য মুক্তিপ্রাপ্ত সৃজিত পরিচালিত ‘রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনো খেতে আসেননি’র স্টাইলে কটাক্ষ করেন তিনি। সিরিজের পোস্টারটিতে ফটোশপ করে বসানো হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর ছবি। সেই সঙ্গে নাম বদলে লেখা হয়েছে ‘মাতঙ্গিনী এখানে কোনও আন্দোলন করতে আসেননি’। এই ছবিটি টুইট করেই প্রধানমন্ত্রীকে ব‍্যঙ্গ করেন সায়নী।

Related Articles