আদালতের দেওয়া সময় পেরোলেও শাহজাহানকে হাতে পেল না CBI, এবার চরম পদক্ষেপ ED-র

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ আগেই সময় বেঁধে দিয়েছিল কলকাতা হাই কোর্ট। বিকেল সওয়া চারটের মধ্যে শেখ শাহজাহানকে (Sheikh Shahjahan) সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেওয়ার কথা ছিল। সেই সময় পার হয়েছে ঘণ্টা খানেক আগেই। তা সত্ত্বেও সন্দেশখালি কাণ্ডের (Sandeshkhali Incident) প্রধান অভিযুক্তকে হাতে পেল না সিবিআই। এখনও শাহজাহানকে নিয়ে ভবানী ভবন থেকে বেরোয়নি কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। সেই কারণে ফের রাজ্যের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ নিয়ে হাই কোর্টের পথে ইডি (ED)!

কলকাতা হাই কোর্ট (Calcutta High Court) আগেই নির্দেশ দিয়েছিল বিকেল সওয়া চারটের মধ্যে শাহজাহানকে সিবিআইয়ের হাতে তুলে দিতে হবে। সেই নির্দেশ অনুযায়ী, সময়ের আগে সিআরপিএফ জওয়ানদের নিয়ে ভবানী ভবন (Bhabani Bhawan) পৌঁছে যান কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকেরা। এরপর দেখতে দেখতে ঘড়ির কাঁটা সওয়া চারটে পেরিয়ে যায়। তবে শাহজাহানকে নিয়ে ভবানী ভবন থেকে সিবিআই (CBI) আধিকারিকদের বেরোতে দেখা যায়নি।

হাই কোর্টের নির্দিষ্ট করে দেওয়া সময়সীমা পেরোতেই ফের আদালতের পথে গিয়েছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। এর মাঝে আরও কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের ভবানী ভবন পাঠানো হয়েছে। মঙ্গলবারই কলকাতা হাই কোর্টের তরফ থেকে শাহজাহানকে সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। সেই নির্দেশ মতো গতকাল ভবানী ভবন পৌঁছে যায় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকেরা। তবে তাঁদের খালি হাতে ফিরতে হয়।

আরও পড়ুনঃ ইস্তফা গ্রহণ করেনি স্পিকার! পরোয়া না করেই অবশেষে বিজেপিতে যোগ তৃণমূল বিধায়ক তাপসের

সূত্রের খবর, সিআইডির (CID) তরফ থেকে জানানো হয়, হাই কোর্টের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানানো হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের (Supreme Court) দ্বারস্থ হয়েছে রাজ্য। এই মামলা এখনও বিচারাধীন। গতকাল প্রথমে রাজ্যের দ্রুত শুনানির আর্জি খারিজ করে দেশের সর্বোচ্চ আদালত। এরপর বুধবার জানানো হয়, দরকার পড়লে প্রধান বিচারপতির কাছে এই বিষয়ে রাজ্য আবেদন করতে পারে।

supreme court upheld the calcutta high court verdict on sheikh shahjahan case

এদিকে আবার রাজ্যের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ এনে হাই কোর্টের দ্বারস্থ হয় এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। ঘটনাচক্রে বিচারপতি হিরণ্ময় ভট্টাচার্য এবং হরিশ ট্যান্ডনের বেঞ্চ জানিয়ে দেয়, বিকেলেই শাহজাহানকে সিবিআইয়ের হাতে হস্তান্তর করতে হবে। এরপরেই ভবানী ভবন পৌঁছয় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকেরা।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর